Amardesh
আজঃঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৫ আগস্ট ২০১৩, ৩১ শ্রাবণ ১৪২০, ৭ সাওয়াল ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিকী
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

নারী নির্যাতন : শিবচরে চার বছরের শিশু ধর্ষিত : বাহুবলে গৃহবধূর শ্লীলতাহানি : বাগেরহাটে ছাত্রীকে অনৈতিক প্রস্তাবে সংখ্যালঘু শিক্ষক বরখাস্ত

ডেস্ক রিপোর্ট
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
মাদারীপুরের শিবচরে চার বছরের এক শিশু ধর্ষিত ও হবিগঞ্জের বাহুবলে শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছেন এক গৃহবধূ। অন্যদিকে বাগেরহাটে ছাত্রীকে মোবাইল ফোনে অনৈতিক প্রস্তব দেয়ার অভিযোগে বরখাস্ত করা হয়েছে অধীর রঞ্জন বিশ্বাস নামে সংখ্যালঘু এক স্কুলশিক্ষককে।
এসব ঘটনার বাইরে নড়াইলে ধর্ষণের বিচার চেয়ে স্থানীয় গণ্যমান্যদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে প্রতিবন্ধী এক স্কুলছাত্রী ও তার পরিবার। অপর ঘটনায় নেত্রকোনায় জনৈক গৃহবধূকে ধর্ষণের দায়ে খোকন মিয়া নামে একজনের যাবজ্জীবন দিয়েছেন আদালত।
এদিকে শিবচরে ধর্ষণের শিকার চার বছরের শিশুটিকে গুরুতর অবস্থায় মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ধর্ষণের ঘটনায় পুলিশ বখাটে রাজীব হাওলাদারকে গ্রেফতার করেছে।
আমার দেশ-এর মাদারীপুর প্রতিনিধি জানান, জেলার শিবচরে চার বছরের শিশুকে ধর্ষণ করে ১৩ বছরের কিশোর রাজীব হাওলাদার। পুলিশ ধর্ষণের অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করেছে। অন্যদিকে ধর্ষিত শিশুটিকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পুলিশ ও শিশুটির পরিবার সূত্রে জানা যায়, শিবচরের কুতুবপুর ইউনিয়নের হোগলারমাঠ গ্রামে মামার বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করে রাজীব হাওলাদার। সে স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র। গত সোমবার দুপুরে রাজীব চার বছরের এক শিশুকন্যাকে নিয়ে পাশের গ্রামের একটি বিয়ে অনুষ্ঠানে যায়। বিয়ে খেয়ে আসার পথে কিশোরটি একটি পাটক্ষেতে নিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করে। বিষয়টি কাউকে না বলতে রাজীব শিশুটিকে ভয় দেখায়। কিন্তু শিশুটি বাড়িতে গেলে অব্যাহত রক্তপাত হতে থাকলে ঘটনাটি সবাইকে জানায়। মঙ্গলবার শিশুটিকে প্রথমে শিবচর পরে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। তার বাবা এ ব্যাপারে শিবচর থানায় অভিযোগ করলে বুধবার সকালে শিবচর থানা পুলিশের একটি দল কিশোর রাজীবকে গ্রেফতার করে।
শিশুটির বাবা বলেন, বাড়িতে এসে মেয়ের অব্যাহত রক্তপাত হতে থাকলে বিষয়টি আমরা বুঝতে পারি। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই।
শিবচর থানার ওসি একেএম মাসুদ বলেন, অভিযুক্ত কিশোরকে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
বাহুবলে শ্লীলতাহানি : হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার কুমেদপুর গ্রামে বখাটের অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় দুই সন্তানের এক জননীর শ্লীলতাহানি করেছে এক বখাটে। এ সময় বখাটের লোহার রডের আঘাতে গৃহবধূর বাম পা জখম হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল সকাল ১০টার দিকে উপজেলার কুমেদপুর গ্রামে।
উপজেলার খাগাউড়া গ্রামের জনৈক আবু মুসার স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে বাস করছে। তার স্ত্রীকে গত বুধবার সকাল ১০টার দিকে স্থানীয় শ্যামল মিয়া ঘরে ঢুকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এতে বাধা দিলে বখাটে শ্যামল রড দিয়ে ওই গৃহবধূকে পিটিয়ে আহত করে। এতে ওই গৃহবধূর বাম পা গুরুতর জখম হয়।
বাগেরহাটে সংখ্যালঘু শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত : বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলা সদরের এ সি লাহা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক অধীর রঞ্জন বিশ্বাসকে গতকাল সাময়িক বরখাস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ। মোবাইল ফোনে প্রতিবেশী এক প্রাইভেট ছাত্রীকে অনৈতিক প্রস্তাব দেয়ার অভিযোগে বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ এ ব্যবস্থা নেয়।
জানা গেছে, উপজেলা সদরের সেরেস্তাদারবাড়ি এলাকার ভাড়াটে বাসিন্দা এ সি লাহা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক অধীর রঞ্জন বিশ্বাস তার প্রতিবেশী দশম শ্রেণীর এক প্রাইভেট ছাত্রীকে মোবাইল ফোনে অনৈতিক প্রস্তাব দেয়।
এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ ওই ছাত্রীর বাবা বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ এ বিষয় গতকাল বুধবার এক সভা করে অধীর রঞ্জন বিশ্বাসকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে এবং ঘটনাটি তদন্ত করার জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করেছে। এ বিষয় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবদুস সালাম হাওলাদার জানান, তদন্ত কমিটির রিপোর্ট পাওয়ার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।
এ বিষয়ে শিক্ষক অধীর রঞ্জন বিশ্বাস জানান, তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ আদৌ সত্য নয়। একটি মহল পরিকল্পিতভাবে এমন অভিযোগ সাজিয়েছে।
নেত্রকোনায় যাবজ্জীবন : ধর্ষণের অভিযোগে নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার শুনাইকান্দি গ্রামের খোকন মিয়া নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। গতকাল নেত্রকোনা অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. আবদুল হামিদ এ সাজা দেন।
আদালত একই সঙ্গে খোকন মিয়াকে নগদ ২০ হাজার টাকা অনাদায়ে আরো অতিরিক্ত দুই বছরের কারাদণ্ডাদেশ প্রদান করে।
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, গত ১১/১০/২০০৩ তারিখ রাতে খোকন মিয়া পূর্বধলা উপজেলার শুনাইকান্দি গ্রামের জনৈক মহিলাকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় পরে ওই মহিলা ধর্ষক খোকনের বিরুদ্ধে পূর্বধলা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।
পুলিশ ঘটনার তদন্ত শেষে ধর্ষক খোকনের বিরুদ্ধে চার্জশিট প্রদান করে। আদালত এর প্রেক্ষিতে খোকন মিয়ার উপস্থিতিতে সাক্ষ্য ও প্রমাণাদির ভিত্তিতে এ রায় প্রদান করেন।
নড়াইলে ধর্ষণের বিচার পেতে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে প্রতিবন্ধী স্কুলছাত্রী ও তার পরিবার : নড়াইলে ধর্ষণের বিচার পেতে অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া এক শারীরিক প্রতিবন্ধী স্কুলছাত্রী ও তার পরিবার ঘুরছে সমাজপতিদের দ্বারে দ্বারে।
চিকিত্সার জন্য বাড়ি থেকে নড়াইল শহরে যাওয়ার পথে পাশের আউড়িয়া গ্রামের মোটর সাইকেল চালক এলাকার চিহ্নিত লম্পট হেলেনের সহযোগিতায় একই গ্রামের সাত্তারের ছেলে টিটো মেয়েটিকে অপহরণ করে। মেয়েটিকে তারা বিভিন্ন জায়গায় ঘুরিয়ে পরে শহরের দক্ষিণ নড়াইল এলাকায় মান্দার ফকিরের ছেলে টুকু ফকিরের বাড়িতে নিয়ে মিথ্যা বিয়ের ফাঁদে ফেলে টিটো মেয়েটিকে ধর্ষণ করে।
ঘটনার বিচার পেতে হতদরিদ্র অসহায় ভুক্তভোগী পরিবারটি এলাকার চেয়ারম্যানসহ স্থানীয় মাতবরদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে দিনের পর দিন।
ধর্ষিতা জানান, গলায় টিউমার রোগের চিকিত্সার জন্য গত ৪ আগস্ট বাড়ি থেকে নড়াইল আসার পথে মোটর সাইকেল চালক হেলেন তাকে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে মোটর সাইকেলে তোলে। তারা রূপগঞ্জ ফল মার্কেটের সামনে পৌঁছালে সেখান থেকে টিটো ওঠে মোটর সাইকেলে। তারা তাকে হাসপাতালে পৌঁছে না দিয়ে নির্জন বিভিন্ন রাস্তা ঘুরিয়ে দক্ষিণ নড়াইল এলাকায় টুকুর বাড়িতে নিয়ে যায়। তার সরলতার সুযোগে সেখানে টুকু ফকিরের পরিচালনায় তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে টিটোর সঙ্গে মিথ্যে বিয়ের কিছু আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করা হয়। সেখানে পরে টিটো তাকে ধর্ষণ করে।
ঘটনার পর ধর্ষিতার পরিবার বিচার চেয়ে এলাকার চেয়ারম্যানসহ স্থানীয় গণ্যমান্যদের শরণাপন্ন হয়। মাতবররা বিভিন্ন আশ্বাস দিলেও আজ পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেননি।