ফেরদৌসী রহমান-আইয়ুব বাচ্চু মতবিরোধ

বিনোদন রিপোর্ট
পরের সংবাদ» ০১ জুলাই ২০১৩, ০০:১১ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশী আইডলের প্রথম পর্বেই বিচারকের আসন ছেড়ে বের হয়ে গেলেন আইয়ুব বাচ্চু। শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টায় (পুনঃপ্রচার শনিবার বিকাল সাড়ে ৩টায়) এসএ টিভিতে সম্প্রচার হওয়া বাংলাদেশী আইডলের প্রথম পর্বের শেষ মুহূর্তে গিয়ে এ অঘটনের জন্ম নেয়। যেখানে চার বিচারকের সামনে নিজেদের যোগ্যতা প্রমাণের জন্য পর্যায়ক্রমে অডিশন দিচ্ছিলেন ঢাকা অঞ্চলের প্রতিযোগীরা। এ পর্বের শেষ প্রতিযোগী হিসেবে বিচারকদের সামনে আসেন শীলা রানী দেবী। তিনি গেয়ে শোনান ক্লাসিক্যাল ঘরানার একটি গান। উপস্থিত তিন বিচারক ফেরদৌসী রহমান, এন্ড্রু কিশোর ও মেহরীন প্রতিযোগীকে বেশ বাহবা দেন। এর মধ্যে খানিক আপত্তি জানান আইয়ুব বাচ্চু। আইয়ুব বাচ্চুর এমন আপত্তির বিপরীতে খোঁচা দিয়ে ফেরদৌসী রহমান বলেন, ওকে নিয়ে আমরা গিটার বাজানো আর ব্যান্ডের গান শেখাব। ফেরদৌসী রহমানের এমন কথা হজম করতে না পেরে সঙ্গে সঙ্গে বিচারকের আসন ছেড়ে বের হয়ে যান আইয়ুব বাচ্চু। ওয়াকআউট প্রসঙ্গে আইয়ুব বাচ্চু বলেন, সত্যি বলতে ফেরদৌসী রহমান আমাদের সর্বজন শ্রদ্ধেয় মা। তার সঙ্গে তো আর বিবাদে যাওয়ার কথা স্বপ্নেও ভাবি না। তবে বাস্তবতা হলো, সেদিন একটা বাজে ঘটনা ঘটে গেছে। তার ব্যান্ড আর গিটারকেন্দ্রিক তাচ্ছিল্য মাখা কথাটি আমার মাথায় বজ্রপাতের মতো লাগে। তেমন কিছু না বিবেচনা করেই নিজেকে সামলানোর জন্য বের হয়ে যাই। এ বিষয়ে জানতে চাইলে খুব একটা মুখ খুলতে নারাজ ফেরদৌসী রহমান। শুধু এটুকু বলেন, বাচ্চু আমার সন্তানতুল্য। মা-ছেলের মধ্যে ঝগড়াঝাটি হতেই পারে। সেটা পরে আবার ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু আমি আপসেট এই কারণে, বিষয়টি টিভিতে সম্প্রচার করতে হবে কেন? এমন তো কথা ছিল না। আগামী পর্বে আমি নিজেই থাকব কিনা সে বিষয়ে নতুন করে ভাবছি।

সাপ্তাহিকী


উপরে