Amardesh
আজঃঢাকা, সোমবার ২০ মে ২০১৩, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২০, ৯ রজব ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ ১২ টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিকী
 কার্টুন
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

ম্যানেজমেন্ট ও খেলোয়াড়রা চান শহীদ আফ্রিদির অবসর

স্পোর্টস ডেস্ক
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদির আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন টিম ম্যানেজমেন্ট ও জাতীয় দলের কিছু খেলোয়াড়। তাদের মতে, আফ্রিদি ‘শেষ’ হয়ে গেছে এবং ক্রিকেটকে দেয়ার মতো তার মধ্যে আর কিছু অবশিষ্ট নেই। আগামী মাসে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জন্য দলে না থাকা সত্ত্বেও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) মাসিক তিন লাখ ৬০ হাজার রুপিতে চুক্তির আওতায় রেখেছে আফ্রিদিকে। বিস্ময়করভাবে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে কেন্দ্রীয় চুক্তিবদ্ধ হওয়ায় আরও কিছুদিন খেলতে পারবে বলে আশা করছেন এ অলরাউন্ডার। কিন্তু চুক্তির বিষয়টি টিম ম্যানেজমেন্টের হাতে থাকলে আফ্রিদির ক্যারিয়ার শেষ হওয়া নিশ্চিত ছিল।
টিম ম্যানেজমেন্টের এক সদস্যের মতে, যদিও আফ্রিদি অতীতে বেশ কিছু ভালো ইনিংস খেলেছেন এবং বল হাতেও দারুণ পারফরম্যান্স দেখিয়েছেন। কিন্তু অন্যকে দেয়ার মতো তার মধ্যে কিছু অবশিষ্ট নেই। আফ্রিদির এখন ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন তিনি। ওই সদস্য আরও জানান, গত এক বছর কিংবা এ সময়ে তার বোলিংয়ের ভিত্তিতেই আফ্রিদিকে দলে নেয়া হয়েছে। কিন্তু তিনি উইকেট নিতে ব্যর্থ হয়েছেন অথবা রান থামাতে ব্যর্থ হয়েছেন, যা দলের জন্য কোনো কাজে আসেনি। জাতীয় দলের এক সদস্য বলেন, গত ১২টি ওয়ানডে ম্যাচে আফ্রিদির উইকেট ৪টি, গত এক বছরে টি-টোয়েন্টিতে তার উইকেট ৭টি। ওই খেলোয়াড় বলেন, একজন খেলোয়াড় যতই অভিজ্ঞ ও দক্ষ হোক না কেন, সেরা একাদশে সুযোগ পেতে হলে কেবল ইতিহাসের ওপর ভর না করে তাকে ধারাবাহিকভাবে পারফরম্যান্স করতে হয়। যদিও বিভিন্ন সময়ে আফ্রিদি দলকে টেনে তুলেছেন এবং সামনে থেকেই দলকে পরামর্শ দিয়েছেন। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে তার দুর্বল ফর্মের কারণেই তার ওপর চাপটা অনেক বেশি হয়েছে এবং দল থেকে বাদ পড়েছেন।
তাত্ক্ষণিকভাবে আফ্রিদির বিকল্প খুঁজে না পাওয়া সত্ত্বেও তাকে বাদ দিয়েই সেরা একাদশ সাজানোর দিকে নজর দিচ্ছে নির্বাচক ও টিম ম্যানেজমেন্ট। আবার আফ্রিদির দলে ফেরার বিষয়টি যদিও বা এখনই নাকচ করা যাচ্ছে না, তবে পাকিস্তান ক্রিকেটের মঙ্গল ও ভবিষ্যত্ চিন্তা করে আফ্রিদিকে বাদ দিয়েই ভাবতে হবে এবং আফ্রিদির উচিত আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নেয়া। গত বছর শেষ দিকে ভারত সফরে ওয়ানডে দল থেকে বাদ পড়েন তিনি। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে দলে ফিরলেও ৩৭ ওভার বল করেও কোনো উইকেট নিতে পারেননি আফ্রিদি।