Amardesh
আজঃঢাকা, সোমবার ২০ মে ২০১৩, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২০, ৯ রজব ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ ১২ টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিকী
 কার্টুন
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

উত্তর কোরিয়া আরও একটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল

রয়টার্স
পরের সংবাদ»
আরও একটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। এ নিয়ে দু’দিনে চারটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাল দেশটি। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেছেন, গতকাল বিকালে স্বল্পপাল্লার আরও একটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপান সাগরে গিয়ে পড়েছে।
এর আগে গত শনিবার স্বল্পপাল্লার তিনটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকে দৃশ্যত সামরিক মহড়া বলে উল্লেখ করেছে। পিয়ংইয়ং ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করার পর দক্ষিণ কোরিয়া পরিস্থিতির ওপর গভীরভাবে নজর রাখছে এবং ঝুঁকিপূর্ণ যে কোনো ঘটনা মোকাবিলার জন্য সামরিক বাহিনীকে প্রস্তুত রেখেছে।
দক্ষিণ কোরিয়া ও আমেরিকার যৌথ সামরিক মহড়া শেষ হওয়ার পর উত্তর কোরিয়া স্বল্পপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল। গত মঙ্গলবার শেষ হওয়া দু’দিনব্যাপী ওই মহড়ায় মার্কিন বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ নিমিত্জ এবং আরও কয়েটি জাহাজ অংশ নেয়। উত্তর কোরিয়া একে যথারীতি উসকানিমূলক তত্পরতা বলে উল্লেখ করেছিল।
এদিকে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন আশা করেন, উত্তর কোরিয়া ভবিষ্যত্ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা পরিহার করবে। শনিবার উত্তর কোরিয়ার পূর্ব উপকূল থেকে তিনটি স্বল্পপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র উেক্ষপণের পর মহাসচিব এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন। বান কি মুন আরআইএ নভোস্তি বার্তা সংস্থাকে বলেন, আমি আশা করি ভবিষ্যতে এ ধরনের পদক্ষেপ থেকে উত্তর কোরিয়া বিরত থাকবে। বান কি মুন এখন মস্কোয় অবস্থান করছেন। এর আগে শনিবার উত্তর কোরিয়ার পূর্ব উপকূল থেকে তিনটি স্বল্পপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র উেক্ষপণ করা হয় বলে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র টেলিফোনে রয়টার্সকে বলেন, ‘সকালে দুই দফা এবং বিকালে একবার স্বল্পপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র উেক্ষপণ করে উত্তর কোরিয়া। মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পরিস্থিতির ওপর নজর রাখা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো ধরনের উসকানিমূলক কর্মকাণ্ডের বিষয়ে সতর্ক রয়েছে তারা। উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র উেক্ষপণের বিষয়টি নজরে এসেছে জাপানি কর্তৃপক্ষেরও। জাপানের এক সরকারি কর্মকর্তার বরাত দিয়ে কিয়োডো বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর কোনোটি তাদের জলসীমায় পৌঁছায়নি। গত ফেব্রুয়ারিতে উত্তর কোরিয়া তৃতীয় দফায় পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর পর যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে তাদের সম্পর্কের চরম অবনতি ঘটে। কোরীয় উপদ্বীপে দেখা দেয় ব্যাপক উত্তেজনা। পরমাণু পরীক্ষার প্রতিক্রিয়ায় গত মাসে উত্তর কোরিয়ার ওপর নতুন করে অবরোধ আরোপ করে জাতিসংঘ। এদিকে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবের উপদেষ্টা ইসাও লিজিমা উত্তর কোরিয়া সফর শেষে শনিবার দেশে ফিরেছেন। বেইজিং হয়ে জাপানে ফেরার পথে তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন। তবে রহস্যজনক এ সফর সম্পর্কে তিনি মুখ খুলতে রাজি হননি। প্রধানমন্ত্রী অ্যাবে জানিয়েছেন, জাপান সরকারের প্রধান মুখপাত্র ও মুখ্য ক্যাবিনেট সচিব ইয়োশিহিদে সুগার কাছে এ সফরের বিষয়ে প্রতিবেদন দেবেন লিজিমা। উত্তর কোরিয়া সফর শেষে লিজিমা সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেও এ নিয়ে কোনো কথা বলতে রাজি হননি। পিয়ংইয়ং সফরের সময় উত্তর কোরিয়ার আলংকারিক রাষ্ট্রপ্রধান কিম ইয়ং-ন্যামের সঙ্গে লিজিমা আলোচনা করছেন এবং এ ধরনের ফুটেজ প্রচারিত হয়েছে বলে জাপানের সরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এনএইচকে জানিয়েছে। তবে বৈঠকে কী আলোচনা হয়েছে তা জানা যায়নি। পরমাণু বোমা ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে যখন আমেরিকা, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের সঙ্গে সম্পর্কের মারাত্মক অবনতি ঘটেছে তখন পিয়ংইয়ং সফর করলেন লিজিমা। তার এ সফরকে বিপজ্জনক বলে অভিহিত করেছে দক্ষিণ কোরিয়া।