Amardesh
আজঃঢাকা, শনিবার ১৮ মে ২০১৩, ২০১৩, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২০, ৭ রজব ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২.০০টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিকী
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

চট্টগ্রামে হেফাজতে ইসলামের সমাবেশ : বাবুনগরীসহ নেতাকর্মীদের মুক্তি না দিলে পরিণতি ভালো হবে না

চট্টগ্রাম ব্যুরো
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ-এর মহাসচিব আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরীকে গ্রেফতার এবং রিমান্ডে নিয়ে নির্যাতনের প্রতিবাদ ও গ্রেফতার করা নেতাকর্মীদের অবিলম্বে মুক্তি এবং ১৩ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে গতকাল বাদ জুমা চট্টগ্রামের আন্দরকিল্লা শাহী জামে মসজিদ উত্তর গেটে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে হেফাজতে ইসলাম চট্টগ্রাম মহানগর শাখা। সমাবেশে হেফাজতের হাজার হাজার নেতাকর্মী ছাড়াও বিপুলসংখ্যক সাধারণ মানুষ অংশগ্রহণ করেন। এ সময় আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরীর মুক্তির দাবিতে স্লোগানে এলাকা প্রকম্পিত হয়ে ওঠে।
এ সময় বক্তারা বলেন, গত ৫ মে সরকার মতিঝিলে দেশের নিরীহ আলেম-ওলামা, মাদরাসা ছাত্র ও নবীপ্রেমিক
জনগণকে নৃশংসভাবে হত্যা করে উল্টো নির্যাতিতদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। সেদিন স্বেচ্ছাসেবক লীগ ক্যাডার দিয়ে কোরআন পুড়িয়ে হেফাজতের ঘাড়ে দোষ চাপানোর চক্রান্ত চালিয়েছে। জনগণ তাদের ভাঁওতাবাজিতে বিশ্বাস করেনি। এ সরকার মানবতার শত্রু ও ইসলামের দুশমন, নাস্তিক-মুরতাদদের দোসর।
সমাবেশ চলাকালে বিপুলসংখ্যক পুলিশ মসজিদের চারদিক ঘেরাও করে রাখে। পুলিশি বাধার কারণে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা মিছিল বের করতে পারেননি। এদিকে বিনা উসকানিতে পুলিশ মিছিলে বাধা দিলে তৌহিদি জনতা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। এ সময় পুলিশ হেফাজতের ১২ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়।
মুফতি আবদুল ওয়াহহাবের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মাওলানা আনোয়ার হোসাইন রব্বানী, মাওলানা আহমদুল্লাহ, মাওলানা এনামুল হক, মাওলানা জায়নুল আবেদীন, মাওলানা ইকবাল খলিল, মাওলানা কুতুবুদ্দিন, মাওলানা ইউনুস, আবু রায়হান, মুহাম্মদ সগির আহমদ ও কামালুদ্দিন।
বিক্ষোভ সমাবেশে নেতারা আরও বলেন, দেশি-বিদেশি গণমাধ্যম ও মানবাধিকার সংগঠনগুলোর কাছে সেদিন শাপলা চত্বরে যৌথবাহিনী ও আওয়ামী সন্ত্রাসীদের ভয়াবহ গণহত্যার বিষয়ে কোনো সন্তোষজক জবাব দিতে ব্যর্থ হয়ে দেশের প্রখ্যাত আলেম, বিশিষ্ট মুহাদ্দিস আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরীসহ লক্ষাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। শাপলা চত্বরের গণহত্যার শত শত ভিডিওচিত্র দেশি-বিদেশি বিভিন্ন গণমাধ্যমে গোচা বিশ্বে ছড়িয়ে গেছে অথচ সরকার মিথ্যা তথ্য দিয়ে জনগণকে ধোঁকা দিতে চাইছে।
সরকারের উদ্দেশে নেতারা বলেন, অবিলম্বে আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী, এদেশের তৌহিদি জনতার মুখপাত্র আমার দেশ সম্পাদক মাহমুদুর রহমানসহ গ্রেফতার করা সব নেতাকর্মীকে নিঃশর্তভাবে মুক্তি দিতে হবে। মিথ্যা মামলার রিমান্ড বাতিল করতে হবে। নেতাকর্মীদের নামে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে দেশে শান্তি ও স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করতে হবে অন্যথায় সারাদেশের আলেম-ওলামা ও নবীপ্রেমি তৌহিদি জনতাকে সঙ্গে নিয়ে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর নেতৃত্বে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে, যার পরিণতি ভালো হবে না।
নেতারা আরও বলেন, শাপলা চত্বরের গণহত্যার বিষয়ে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করে জাতির কাছে ঘটনার আদ্যেপান্ত চিত্র তুলে ধরতে হবে অন্যথায় সারাদেশে নবীপ্রেমিক জনতা আবার দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবে এবং ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্ত ও বিচারের জন্য জাতিসংঘ এবং আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করা হবে।