Amardesh
আজঃঢাকা, শনিবার ১৮ মে ২০১৩, ২০১৩, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২০, ৭ রজব ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২.০০টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিকী
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

নয়া সরকার দায়িত্ব নেয়ার পর পাক ভারত শান্তি প্রক্রিয়া জোরদার হবে

ডন, রয়টার্স
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
পাকিস্তানে নতুন সরকার দায়িত্ব নেয়ার পর প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতের সঙ্গে সেদেশের শান্তি প্রক্রিয়া জোরদার হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছে ইসলামাবাদ। পাক পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আইজাজ চৌধুরী সাংবাদিকদের সাপ্তাহিক ব্রিফিংয়ে এ আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। তিনি বলেন, বিরাজমান সঙ্কট নিরসনের জন্য পাকিস্তান সব সময় শান্তি আলোচনা অব্যাহত রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করেছে। চলতি বছরের শুরুতেই কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণ রেখা লঙ্ঘনকে কেন্দ্র করে দেশ দুটির শান্তি প্রক্রিয়া যখন কার্যত অচল হয়ে রয়েছে, তখন এ আশা প্রকাশ করল পাকিস্তান। পাক-ভারত উত্তেজনা বেড়ে যাওয়ার শিকার হয়েছে দুই দেশের কারাগারে আটক বন্দিরা। পাকিস্তানের লাহোর কারাগারে আটক ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা ‘র’-এর অনুচর সারাবজিত সিং সহবন্দিদের হামলায় মারাত্মক আহত হওয়ার পর চিকিত্সারত অবস্থায় মারা যায়। এর প্রতিশোধ হিসেবে ভারতের কারাগারে আটক পাকিস্তানি বন্দি সানাউল্লাহর ওপর সহবন্দি এক সাবেক ভারতীয় সেনাসদস্য হামলা করে এবং চিকিত্সারত অবস্থায় তারও মৃত্যু হয়। এছাড়া, ভারতের তিহার কারাগারে আটক পাকিস্তানি বন্দি আবদুল জাব্বার হামলায় আহত হয়েছে।
বন্দিদের নিয়ে সৃষ্ট সমস্যার বিষয়ে ভারতীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হয়েছে বলেও জানান পাক-পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র। ভারতের বিভিন্ন কারাগারে বর্তমানে প্রায় ৩০০ পাকিস্তান বন্দি রয়েছে। এদের মধ্যে ৪৭ জনের সাজার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও তারা আটক রয়েছে বলে জানান আইজাজ চৌধুরী। এ বিষয়টি ভারত সরকারের নজরে আনার কথা উল্লেখ করেন এ মুখপাত্র। এদিকে, জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী ১৭ জন স্বতন্ত্র সদস্য যোগদান করায় পাকিস্তানে নওয়াজ শরীফের মুসলিম লীগের (পিএমএল-এন) নেতৃত্বে সরকার গঠন চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে। গতকাল জিও নিউজের অন লাইন সংবাদে একথা বলা হয়। রাইউন্ডের জাতি ওমারায় নওয়াজ শরীফের বাসভবন রাজনৈতিক তত্পরতার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। স্বতন্ত্র সদস্য জাম কামাল, দোস্তিন দোমকি, খালিদ মাগসি, আসগর শাহ প্রমুখ নওয়াজ শরীফের সঙ্গে সাক্ষাত্ করে তার দলে যোগদানের ঘোষণা দিয়েছেন। আগামী দু’তিন দিনের মধ্যে মুসলিম লীগের একটি বৈঠকে মন্ত্রিসভা গঠনের বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে।নওয়াজ শরীফের ছোট ভাই পাঞ্জাবের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরীফ বৃহস্পতিবার জমিয়ত উলেমা-ই-ইসলামের (এফ) প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমানের সঙ্গে সাক্ষাত্ করেন এবং তাকে মুসলিম লীগের নেতৃত্বে সরকারে যোগদানের আমন্ত্রণ জানান। তবে দলের কেন্দ্রীয় কমিটির মতামত প্রহণে মাওলানা ফজলুর রহমান কয়েকদিন সময় চেয়েছেন। মাওলানা ফজলুর রহমান খাইবার পাখতুনখাওয়ায় (সাবেক উত্তর-পশ্চিম সীমান্ত প্রদেশ) কোয়ালিশন সরকার গঠনে নওয়াজ শরীফকে রাজি করাতে ব্যর্থ হয়েছেন। খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশে সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খানের পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছে। পিএমএল-এন শুক্রবার সাধারণ নির্বাচনে বিজয় উদযাপনে ইয়ুম-ই-তাশাকুর’ দিবস পালন করছে। পাকিস্তানে নওয়াজ শরীফের মন্ত্রিসভায় পদ পেতে তার দলের নেতারা ব্যাপক তদবির চালাচ্ছেন। সাধারণ নির্বাচনে বিজয়ী পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) কেন্দ্র এবং পাঞ্জাব প্রদেশে সরকার গঠন করবে।
পাকিস্তানে প্রেসিডেন্ট, স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার ও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়ার জন্য কয়েকজনকে পছন্দের তালিকায় রেখেছেন সদ্য বিজয়ী মুসলিম লীগ প্রধান নওয়াজ শরীফ। বৃহস্পতিবার কয়েকটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানায়, পাকিস্তানের আগামী পার্লামেন্টের স্পিকার পদে মেহমুদ খান অথবা রিয়াজ পীরজাদার নাম আসার সম্ভাবনা রয়েছে। অন্যদিকে ডেপুটি স্পিকার পদে সুমাইরা মালিক অথবা তারিক ফাজাল মনোনয়ন পেতে পারেন। এদিকে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পদের জন্য জেনারেল কাদির বালুচ অথবা রাজা জাফারুল হক ও প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা পদে সাঈদ আলি শাহ অথবা আমির মুকিম পছন্দের তালিকায় রয়েছেন। এছাড়া বর্তমান প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারির পর রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পদে শারতাজ আজিজের নাম প্রস্তাবের সম্ভাবনা রয়েছে বর্তমান মুসলিম লীগ প্রধান নওয়াজ শরীফের। তবে মন্ত্রিপরিষদে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তার সবই অনুমানের ভিত্তিতে বলে জানিয়েছেন সিনেটর পারভেজ রশিদ। এসব বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে তিনি জানান। এদিকে পাকিস্তানে সেনাবাহিনীর গাড়িবহরে সন্ত্রাসী হামলায় পাঁচ সেনাসদস্য নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে অপর ছয়জন। শুক্রবার খাইবার প্রদেশের সারা খাওয়ারা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। হতাহতরা সবাই ইঞ্জিনিয়ার ব্যাটালিয়নের সদস্য। হামলার পরই কয়েক গজ দূরে অবস্থানরত পুলিশের একটি সাঁজোয়া গাড়িতে হামলা চালানো হলে চার পুলিশ আহত হয়। সেনা সূত্রে জানানো হয়, সেনাবাহিনীর বহরটি সারা খাওয়ারা এলাকায় পৌঁছলে আগে থেকে অ্যাম্বুশ করা সন্ত্রাসীরা রকেট হামলা চালায়। এরপর গুলি চালায় তারা। আহতদের পেশোয়ারের লেডি রিডিং হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।