Amardesh
আজঃ শনিবার ১৯ জানুয়ারি ২০১৩, ৬ মাঘ ১৪১৯, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৪    আপডেট সময়ঃ রাত ১২ টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 বিশেষ আয়োজন
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

দুঃশাসন এবার আ.লীগের মৃত্যু ঘটাবে : বিএনপি : জিয়ার খুনি এমপি গিয়াসকে বিচারের মুখোমুখি করুন : তরিকুল : আওয়ামী দুঃশাসন জাতি মনে রাখবে : মওদুদ

স্টাফ রিপোর্টার
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
আওয়ামী লীগ দেশে দুঃশাসন চালাচ্ছে অভিযোগ এনে বিএনপি নেতারা বলেছেন, তিন যুগ আগে শেখ মুজিবুর রহমান আওয়ামী লীগকে হত্যা করেছিল। পরে বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা জিয়াউর রহমান আওয়ামী লীগের পুনর্জন্ম দেন। এবারের চলমান দুঃশাসন থেকে সরে না এলে আওয়ামী লীগের আবারও মৃত্যু ঘটবে। তবে এবার আর এ দলটি বাংলাদেশের রাজনীতিতে ফিরতে পারবে না। গতকাল পৃথক কর্মসূচিতে এসব কথা বলেন বিএনপির সমন্বয়ক ও স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ এমপি, ড. আবদুল মঈন খান ও যুগ্ম মহাসচিব রহুল কবির রিজভী। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ও সমসাময়িক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তারা বক্তৃতা করেন।
অস্ত্রবাজ এমপি গিয়াস উদ্দিনকে বিচারের মুখোমুখি করুন-তরিকুল : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম বলেন, ‘সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান হত্যার আত্মস্বীকৃত খুনি সরকার দলীয় সংসদ সদস্য গিয়াস উদ্দিন আহমেদকে অবিলম্বে আটক করে বিচার করতে হবে। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে গতকাল সকালে তার ৭৭তম জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তিনি এ দাবি জানান। বিএনপি নেতা তরিকুল ইসলাম বলেন, বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে গিয়াস উদ্দিন নিজেকে জিয়াউর রহমান হত্যা মামলার আসামি দাবি করেছেন। আত্মস্বীকৃত এই খুনির বিচার যদি সরকার না করে তাহলে জনগণের আদালতেই তার বিচার হবে। শিক্ষকদের ওপর পিপার স্প্রে নিক্ষেপের সমালোচনা করে তরিকুল বলেন, আন্দোলনকারী শিক্ষকদের ওপর সরকার অত্যাচার-নির্যাতন চালাচ্ছে। শিক্ষকদের ওপর পিপার স্প্রে নিক্ষেপের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, পিপার স্প্রে নিক্ষেপের ঘটনায় একজন শিক্ষক মারা গেছেন। ওই মারা যাওয়ার ঘটনারও বিচার হবে। শিক্ষক নির্যাতনের দাবি করে তরিকুল সরকারের পতন আসন্ন বলে মন্তব্য করেন। এর আগে জিয়ার মাজারে জিয়াউর রহমানের ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শিশু-কিশোরদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন তিনি। জাতীয়তাবাদী সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস) আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বিএনপির সাংস্কৃতিক সম্পাদক গাজী মাযহারুল ইসলাম, জাসাস সভাপতি এমএ মালেক, সাধারণ সম্পাদক মনির খান উপস্থিত ছিলেন।
আওয়ামী দুঃশাসন জাতি মনে রাখবে-মওদুদ : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ বলেন, জাতির মনে দাগ কাটা চারটি ঐতিহাসিক কারণে আওয়ামী লীগকে মনে রাখবে দেশবাসী। কারণগুলো হলো : ’৭২ থেকে ’৭৫ পর্যন্ত রক্ষীবাহিনীর অত্যাচার, স্বাধীনতার পর পরিকল্পিত দুর্ভিক্ষ, বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করতে বর্তমানে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধূলিসাত্ করা ও তত্ত্বাবধায়ক সরকার-পদ্ধতি বাতিল করে একদলীয় শাসনব্যবস্থা কায়েমের চেষ্টা । শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘গণতন্ত্রের শাসন সুরক্ষায় করণীয়’ শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক রাশিয়া সফর ও চুক্তির কথা উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা অভিযোগ করেন, তিনটি চুক্তির অধীনে সরকার রাশিয়ার কাছ থেকে ১২ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র কিনবে। এই অস্ত্র কেনা থেকে ১০ শতাংশ হারে কমিশন খাওয়ার জন্য সরকার এ চুক্তি করেছে। তিনি জানান, এ চুক্তি করার আগে প্রধানমন্ত্রীর উচিত ছিল জনগণ ও সংসদকে অবহিত করা। মওদুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী তার একক সিদ্ধান্তে রাশিয়ার সঙ্গে ঋণচুক্তি করে একদলীয় শাসনের পথ আরও পরিষ্কার করেছেন। এ ঋণের জন্য দেশকে উচ্চহারে সুদ দিতে হবে। এ দেশের মানুষকেই এ ঋণের বোঝা বইতে হবে। মহাজোট সরকারের গত চার বছরে দেশ দুঃশাসন ও কুশাসনের রাজনীতি দেখেছে উল্লেখ করে মওদুদ বলেন, বিএনপির মহাসচিবকে মিথ্যা মামলা দিয়ে সরকার জেলে রেখেছে। স্বাধীনতার পর গত ৪০ বছরে অনেক স্বৈরশাসক, সামরিক ও অগণতান্ত্রিক শাসক দেখেছি, কিন্তু মিথ্যা মামলা দিয়ে একটি বড় দলের মহাসচিবকে জেলে আটক রাখার দৃষ্টান্ত দেখিনি। বাংলাদেশ গণতন্ত্র উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি বোরহান মিয়ার সভাপতিত্বে ওই সেমিনারে বিএনপির অর্থ সম্পাদক আবদুস সালাম মিয়া, বাংলাদেশ ট্যাক্স ল’ ইয়ার অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব একেএম নেছারউদ্দিন বক্তব্য দেন।
বিশ্বব্যাংকের কথায় ওঠ-বস করছে সরকার-এম কে আনোয়ার : পদ্মাসেতু নিয়ে দুর্নীতি হয়েছে বলেই বিশ্বব্যাংকের কথায় সরকার কান ধরে ওঠ-বস করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এমকে আনোয়ার। মরহুম রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক ফাউন্ডেশন আয়োজিত গোলটেবিল আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। এমকে আনোয়ার বলেন, আবুল হোসেনকে বাদ দিয়ে মামলা করে এখন বিশ্বব্যাংকের চাপে আবার তাদের মামলায় অভিযুক্ত করার চেষ্টা চলছে। এতেই প্রমাণ হয় পদ্মাসেতু প্রকল্পের দুর্নীতিতে আবুল হোসেন জড়িত। তিনি বলেন, এতদিন তাদের মামলায় জড়ানো হয়নি, কারণ এই দুর্নীতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ট কেউ কেউ জড়িত। কান টানলে মাথা আসবে—এ ভয়েই তাদের মামলায় এজাহারে আনা হয়নি বলেও অভিযোগ করেন আনোয়ার। এ ঘটনায় জড়িত আরও কয়েকজনকে বাঁচাতে সরকার উঠেপড়ে লেগেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, যাদের সমাজে কোনো সম্মান নেই, তাদের বাঁচালে পদ্মাসেতু হবে না। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধে আওয়ামী লীগের কোনো নেতাকে হ্যারিকেন দিয়ে খুঁজে পাওয়া যায়নি। অথচ তারাই আজ নিজেদের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি দাবি করছে। আওয়ামী লীগের নেতারা ভারতের একটি রাজ্যে আরাম-আয়েসে ছিল বলে দাবি করে তিনি বলেন, পাকিস্তানি বাহিনী আত্মসমর্পণের সময় আওয়ামী লীগের কোনো নেতাকে দেখা যায়নি। আওয়ামী লীগের ব্যর্থতার জায়গায় জিয়াউর রহমান ছিলেন সফল—এমন দাবি করে এমকে আনোয়ার বলেন, “তাকে আজ ইতিহাস থেকে মুছে ফেলার ষড়যন্ত্র হচ্ছে।” স্বাধীনতা-পরবর্তী সময় ’৭২ থেকে ’৭৫ সালে একটি সভ্যদেশ হওয়ার যা যা উপকরণ প্রয়োজন আওয়ামী লীগ সবকিছুই ধ্বংস করে দিয়েছিল অভিযোগ করে তিনি বলেন, সে কলঙ্ক থেকে আজও বের হতে পারিনি আমরা। সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীকে গণতন্ত্রের কালো অধ্যায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, জনগণ একদিন এই সংশোধনীকে আঁস্তাকুড়ে ফেলে দেবে। জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক ফাউন্ডেশন সভাপতি হুমায়ুন কবির বেপারীর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, যুবদল সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ন্যাপ মহাসচিব গোলাম মোস্তফা প্রমুখ।
দুঃশাসনের কারাগারে তাদের চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত করা হবে- রিজভী : আওয়ামী লীগের রচিত দুঃশাসনের কারাগারে তাদেরও চিরস্থায়ীভাবে বসবাসের বন্দোবস্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির যু্গ্মমহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।
গতকাল নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ৩০ লাখ শহীদের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতা আজ আওয়ামী দুঃশাসন, হিংস্রতায় বিপর্যস্ত। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার নয়লাভাঙ্গা ইউপিতে আওয়ামী লীগ ক্যাডারদের ব্যাপক বোমাবাজি, লুটপাট এবং বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। রুহুল কবির বলেন, আওয়ামী লীগের প্রতিহিংসা, বর্বরতা, দুঃশাসন, নির্যাতনের মধ্যে বর্তমানে সাধারণ মানুষ বসবাস করছেন। তিনি বলেন, এখন যে কোনো মুহূর্তে যে কেউ গুম, খুন, মিথ্যা মামলা ও দমন-নিপীড়নের শিকার হতে পারেন। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার নয়লাভাঙ্গা ইউপির গাইনপাড়া, মোড়লপাড়া, যাত্রাপাড়া, সুন্দরগঞ্জে ব্যাপক বোমাবাজি করে ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করে বাড়িঘরে ভাংচুর এবং ৫০টির মতো বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়ার জন্য আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের দায়ী করেন। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, এ সময় বিদ্যুত্ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার (অব.) এনামুল হক শিবগঞ্জ রেস্ট হাউসে উপস্থিত ছিলেন। বিএনপির এ যুগ্ম মহাসচিব অভিযোগ করে বলেন, আওয়ামী লীগ ক্যাডারদের বর্বরতা এতই নির্মম ছিল যে, এলাকার মানুষ বুঝতে পেরেছেন, সরকার সন্ত্রাসীদের মদদ দিয়ে এ ঘটনা ঘটাচ্ছে। তিনি বলেন, বোমাবাজির সময় সন্ত্রাসী নাইরুল তার নিজের বোমায় আহত হয়েছে। আহতাবস্থায় হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনাকে এখন অন্যদিকে প্রবাহিত করতে নিরীহ লোকজনদের বিরুদ্ধে মামলা করে হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করে তিনি এর তীব্র নিন্দা জানান। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন-যুবদলের সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বিএনপি মহানগর কমিটির সদস্য আবদুস সালাম, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেল এবং মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন সুলতানা প্রমুখ।
বিরোধী দল দমনে নতুন অস্ত্র কিনেছে সরকার-মঈন খান : বিরোধী দল দমনে রাশিয়া থেকে ৮ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র কিনেছে সরকার এমন অভিযোগ করেছেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ড. মঈন খান। গতকাল বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও নাসির উদ্দিন আহমেদ পিন্টুর মুক্তির দাবিতে ‘দেশ বাঁচাও, মানুষ বাঁচাও’ আন্দোলনের অবস্থান কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, রাশিয়ার সঙ্গে চুক্তির পর মন্ত্রী বলেছেন সব দেশের সঙ্গে বন্ধুত্ব সম্পর্ক বজায় রাখবে এ সরকার। সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব হলে কার বিরুদ্ধে এ অস্ত্র ব্যবহার করতে চান তা স্পষ্ট করতে হবে। বাম দলের হরতালে পিপার স্প্রের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘একটি হরতালে আপনারা সহযোগিতা করছেন। অন্য আরেকটি হরতালে আপনারা পিপার স্প্রে ব্যবহার করেছেন।’ সংগঠনের সভাপতি কে এম রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন লেবার পার্টির সভাপতি ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, বিএনপি নির্বাহী কমিটির সদস্য ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল ও হৃদয়ে বাংলাদেশ সভাপতি মেজর (অব.) হানিফ, সাবেক এমপি হেলেন জেরীন খান, ছাত্রদলের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি শহিদুল ইসলাম বাবুল প্রমুখ।