Amardesh
আজঃঢাকা, মঙ্গলবার ৮ জানুয়ারি ২০১৩, ২৫ পৌষ ১৪১৯, ২৫ সফর ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২ টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

আ.লীগের ৪ বছর পূর্তিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ইলিয়াসকে ফেরত চাইল সিলেটবাসী

ওসমানীনগর (সিলেট) প্রতিনিধি
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
সিলেটের উন্নয়নের বরপুত্র বিএনপির জনপ্রিয় নেতা এম. ইলিয়াস আলীর ঋণ শোধ করতে তার নির্বাচনী এলাকা ওসমানীনগরের জনগণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আওয়ামী লীগের শাসন আমলের চার বছর পূর্তি ও ইংরেজি নববর্ষ বরণে ইলিয়াস আলীকে উপহার হিসেবে ফেরত চেয়েছে।
গতকাল ইলিয়াস আলীকে ফিরে পাওয়ার দাবি সংবলিত একটি লিখিত প্রেসনোটে থানার বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক ব্যক্তিরা এ দাবি জানান।
তারা বলেন, ৬ জানুয়ারি আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মহাজোট সরকারের চার বছর পূর্তি পালিত হয়েছে। ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দলটি সরকার গঠন করলে গত চার বছরে ওসমানীনগরে উল্লেখযোগ্য কোনো উন্নয়ন হয়নি উল্লেখ করে তারা বলেন, সিলেট-২ আসনের এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী একজন কার্টুন। কার্টুনে প্রকাশিত সব ঘটনা ও চরিত্র যেমন অলস মস্তিষ্কের কাজ, এমপি শফিকও তাই। কেননা গত বছরের ১৭ এপ্রিল বিএনপির জনপ্রিয় নেতা তারই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী এম. ইলিয়াস আলী নিখোঁজের ৯ মাসেও এমপি শফিক এখন পর্যন্ত নিখোঁজ ইলিয়াস আলীর বৃদ্ধা মা, স্ত্রী-সন্তান ও আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে দেখা করা তো দূরের কথা, শোকাহত এ পরিবারটিকে একটু সান্ত্বনা দেয়ার প্রয়োজনবোধও মনে করেননি।
এমপি শফিকের এমন স্পর্শকাতর ও বেদনাদায়ক ঘটনার বিষয়টি উল্লেখ করে বিবৃতিতে দায়ামীর বাজার ব্যবসায়ী কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবদুল রউফ আবদুল বলেন, এমপি শফিকের লোমহর্ষক এমন কর্মকাণ্ডে মোটেই হতাশ নয় ওসমানীনগরবাসী। তারা কেবল প্রধানমন্ত্রীর ঐতিহাসিক বাক্য ‘রাজনীতির ঊর্ধ্বে মানববতাকেই লালন ও বাস্তবায়িত’ করতে আওয়ামী লীগের চার বছর পূর্তি, ইংরেজি নববর্ষ বরণের চলিত মাসেই ইলিয়াসকে জীবিত ও অক্ষত অবস্থায় ফেরত দেয়ার দাবি জানিয়েছেন।
এদিকে বাবা ইলিয়াসকে জীবিত ও অক্ষত অবস্থায় ফেরত চেয়ে সাইয়ারা নাওয়াল প্রথমেই একটি চিঠি লিখেছিল বাংলাদেশে সফররত যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের কাছে। এরপর নিজের জন্মদিনে বাবাকে উপহার চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছেও একটি চিঠি লেখে। সর্বশেষ গত বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর দেশবাসীর কাছে পোস্টার আকারে একটি খোলা চিঠিতে দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী, সরকারের সব প্রশাসনযন্ত্র, দেশের সব রাজনৈতিক দল ও নেতাকর্মী এবং দেশের সব বিবেকবান মানুষের সহযোগিতা কামনা করেছিল। কিন্তু আজ অবধি এ শিশুটির বাবার সন্ধান কেউ দিতে পারেনি। প্রসঙ্গত, গত বছরের ১৭ এপ্রিল মধ্যরাতে ঢাকা বনানীর নির্জন সড়ক থেকে বিএনপির জনপ্রিয় সাহসী নেতা এম. ইলিয়াস আলীকে অপহরণ করা হয়। দীর্ঘদিনেও তার কোনো সন্ধান না পাওয়ায় অপহরণ রহস্য ক্রমেই দানা বাঁধছে। র্যাব-সিআইডিসহ পুলিশের নীরব ভূমিকায় হতাশ করেছে সবাইকে। দেশজুড়ে চাঞ্চল্যকর ও আতঙ্ক সৃষ্টিকারী ঘটনার পর আজ পর্যন্ত দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ইলিয়াসকে আদালতে হাজির করতে পারেনি।