Amardesh
আজঃঢাকা, মঙ্গলবার ৮ জানুয়ারি ২০১৩, ২৫ পৌষ ১৪১৯, ২৫ সফর ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২ টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

মাগুরায় পুলিশের সামনে অর্ধ কোটি টাকার টেন্ডার ছিনতাই করেছে ছাত্রলীগ

মাগুরা প্রতিনিধি
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
ছাত্রলীগের একটি সশস্ত্র গ্রুপ পুলিশের উপস্থিতিতে মাগুরা গণপূর্ত বিভাগের অর্ধ কোটি টাকার সিআইডি অফিস ভবন নির্মাণের দরপত্র ছিনতাই করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় কর্তৃপক্ষ সদর থানায় জিডি রুজু এবং দরপত্রটি বাতিল করে পুনঃদরপত্র আহ্বানের ঘোষণা দিয়েছে। টেন্ডার ছিনতাইয়ের পর আওয়ামী লীগ দলীয় দু’দল ঠিকাদার গ্রুপের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।
ঠিকাদার রাশেদুল ইসলাম রাখু জানান, মাগুরা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের তৃতীয় তলায় সিআইডি অফিস নির্মাণের জন্য গণপূর্ত বিভাগ অর্ধ কোটি টাকার এই দরপত্র আহ্বান করে। গতকাল দরপত্র জমা দেয়ার শেষ তারিখ থাকায় অফিস শুরুর সঙ্গে সঙ্গে গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর কক্ষে রাখা সংরক্ষিত বাক্সে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স আনিসুর রহমান নামে সে নিজে ও গ্যালাক্সি অ্যাসোসিয়েটসের পক্ষে অপর একটি ঠিকাদার গ্রুপ দরপত্র জমা দেয়। কিছুক্ষণ পর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক কমিটির নির্বাহী সদস্য ও শেখ রাসেল শিশু-কিশোর পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মীর সুমনের নেতৃত্বে একটি সশস্ত্র গ্রুপ পুলিশের উপস্থিতিতেই টেন্ডার বাক্স থেকে দরপত্র ছিনতাই করে নিয়ে যায়।
তবে মীর সুমন এ অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, ‘গণপূর্ত অফিস এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা রাশেদুল ইসলাম রাখু ও তার ভাই জেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর কাউন্সিলর মকবুল হোসেন মাকুলের নেতৃত্বে একটি সিন্ডিকেট প্রভাব খাটিয়ে দীর্ঘদিন ধরে গণপূর্ত বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ম্যানেজ করে গোপনে সব কাজ নিয়ন্ত্রণ করে আসছে। তাদের নেগোসিয়েশনে রাজি না হয়ে দরপত্রে অংশগ্রহণের জন্য সকাল ৯টায় অফিসে গিয়ে দেখতে পাই নির্ধারিত সময়ের আগেই টেন্ডার বাক্সে দরপত্র জমা রয়েছে। অথচ নিয়ম হচ্ছে, সকাল ৯টায় অফিস টাইম শুরুর সময় উপস্থিত ঠিকাদারদের সামনে খালি বাক্স দেখিয়ে তা সিল করে দরপত্র জমা নেয়ার। যে কারণে আমি বিষয়টির প্রতিবাদ করি ও নেগোসিয়েশনের প্রক্রিয়া ভেস্তে যাওয়ায় ঠিকাদার রাখুসহ তাদের সিন্ডিকেট নিজেরাই বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে আমাকে দোষারোপ করছে। আমি সেখানে কোনো বিশৃঙ্খলা করিনি। উপরন্তু মাকুল ও তার ভাই রাখু সশস্ত্র অবস্থায় সেখানে মহড়া দিয়েছে।’
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, ‘সকাল থেকে গণপূর্ত অফিসে পুলিশলাইনের কয়েকজন কনস্টেবল নিচে পাহারায় ছিল। এরই মধ্যে এ ঘটনা ঘটেছে। তবে এটি ছিনতাই নয়। চুরির ঘটনা। আমরা খবর পেয়ে তাত্ক্ষণিকভাবে সেখানে গিয়েছি। কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে।’
গণপূর্ত অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী সারওয়ার আহমদ বলেন, টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারের নির্মাণকাজ দেখার জন্য তিনি ওই সময় অফিসের বাইরে ছিলেন। টেন্ডার বাক্স থেকে কয়েকজন যুবকের দরপত্র নিয়ে যাওয়ার খবর পেয়ে তিনি তাত্ক্ষণিকভাবে অফিসের স্টাফদের কাছ থেকে বিস্তারিত জেনে থানায় ডায়েরি করার পাশাপাশি দরপত্র বাতিল করে নতুন দরপত্র আহ্বানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।