Amardesh
আজঃঢাকা, মঙ্গলবার ৮ জানুয়ারি ২০১৩, ২৫ পৌষ ১৪১৯, ২৫ সফর ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২ টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

কক্সবাজারে ‘গণধর্ষণ’ করে হত্যা!

কক্সবাজার প্রতিনিধি
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
কক্সবাজারে এক কিশোরীকে গণধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে! হত্যার পর লাশ বাড়ির গাছে ঝুলিয়ে রাখা হয়। এমনই অভিযোগ তুলেছেন নিহত কিশোরী রাবিয়া বসরীর (১৬) পরিবার। গতকাল সকাল ৯টার দিকে কক্সবাজার মডেল থানা পুলিশ কিশোরীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। রাবিয়া বসরী সদর উপজেলার পিএমখালী ইউনিয়নের মোহছেনিয়াপাড়ার দিনমজুর আবদুস শুক্কুরের মেয়ে। স্থানীয় পিএমখালী আবু বক্কর ছিদ্দিক মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী।
নিহত কিশোরীর বাবা আবদুস শুক্কুর সাংবাদিকদের জানান, গভীর রাতে বাড়িতে তার ৩ মেয়ে ঘুমিয়েছিল। ঘুম থেকে তুলে নিয়ে অজ্ঞাত দুষ্কৃতকারীরা ‘গণধর্ষণ’ করে তাকে হত্যা করে।
তার দাবি, ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ বাড়ির উঠানের একটি গাছে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।
তিনি মনে করেন, তার সৌদি প্রবাসী ভাই ফোরকানের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিরোধ রয়েছে। এই বিরোধের জের ধরেই তার প্রবাসী ভাইয়ের স্ত্রী হামিদা আকতার এই ঘটনা ঘটিয়েছে।
আবদুস শুক্কুর বলেন, রোববার সন্ধ্যার পরই আমি মাছ ধরতে খালে চলে গিয়েছিলাম। দুই ছেলেও বাড়ির বাইরে ছিল। এই সুযোগে দুষ্কৃতকারীরা বাড়িতে ঢুকে বড় মেয়েকে বেঁধে রেখে ছোট মেয়ে রাবিয়া বসরীকে তুলে নিয়ে যায়।
পিএমখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, একটি মেয়ের ঝুলন্ত লাশ পাওয়া গেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে গেছে। ময়নাতদন্তের পরই মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।
তিনি জানান, নিহত কিশোরীর পরিবার হত্যার অভিযোগ তুললেও ময়নাতদন্ত রিপোর্টের আগে কিছু বলা সম্ভব নয়।
কক্সবাজার মডেল থানার দ্বিতীয় কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক সাহেদ উদ্দিন প্রাথমিক তদন্তে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি জানান, কে ওই কিশোরীকে হত্যা করেছে কেউ দেখেনি। তবে কেউ বলছেন, ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। আবার কেউ বলছেন, ধর্ষণ করে হত্যা করা হয়েছে। এ সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। তবে নিশ্চিত কিছু বলা যাচ্ছে না।
পুলিশ কর্মকর্তা সাহেদ জানান, নিহত কিশোরীর ভাই কামাল উদ্দিন বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলার এজাহার জমা দিয়েছেন। মামলার প্রস্তুতি চলছে।