Amardesh
আজঃঢাকা, মঙ্গলবার ৮ জানুয়ারি ২০১৩, ২৫ পৌষ ১৪১৯, ২৫ সফর ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২ টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

জিতেছে রিয়ালও : জয় দিয়ে বছর শুরু বার্সার

স্পোর্টস ডেস্ক
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
স্প্যানিশ লা লিগায় জয়রথ ছুটেই চলেছে জায়ান্ট বার্সেলোনার। বড় জয় দিয়েই নতুন বছরের শুরুটা করেছে কাতালানরা। রোববার রাতে পেদ্রোর জোড়া গোলে বার্সা ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে এস্পানিয়লকে। বার্সার পক্ষে অপর দুটি গোল করেন লিওনেল মেসি ও জাভি। লা লিগায় এ পর্যন্ত মোট ১৮টি ম্যাচ খেলে একটিতেও হারেনি কোচ টিটো ভিলানোভার দলটি। জয় পেয়েছে ১৭টি ম্যাচেই। একটি মাত্র ম্যাচে ড্র করেছিল কাতালানরা। ‘অপ্রতিরোধ্য’ বার্সা লিগে পয়েন্ট তালিকায়ও নিজেদের নিয়ে গেছে অনেকটাই ধরাছোঁয়ার বাইরে। লিগে এখন সর্বোচ্চ ৫২ পয়েন্ট বার্সার। তালিকায় দুই নম্বরে থাকা অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের সঙ্গে বার্সার পয়েন্ট ব্যবধান দাঁড়িয়েছে ১১। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের চেয়ে ১৬ পয়েন্ট এগিয়ে আছে বার্সা। তালিকায় অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ ও রিয়াল মাদ্রিদের পয়েন্ট যথাক্রমে ৪১ ও ৩৬। তালিকায় চার ও পাঁচ নম্বরে রয়েছে মালাগা (৩১) ও রিয়াল বেটিস (৩১)।
বার্সার জয়ের রাতে রিয়াল সোসিয়েদাদের বিপক্ষে ম্যাচে শেষ হাসি হেসেছে রিয়াল মাদ্রিদও। তারা ৪-৩ গোলে হারিয়েছে রিয়াল সোসিয়েদাদকে। অন্য ম্যাচে সেল্টা ভিগো ৩-১ গোলে হারিয়েছে রিয়াল ভায়াদোলিদকে।
ক’দিন অনুপস্থিতির পর রোববার আবারও বার্সার ডাগআউটে ফিরে আসেন কোচ টিটো ভিলানোভা। ঘরের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে প্রিয় কোচকে জয় দিয়ে স্বাগত জানানোর জন্য খেলার শুরু থেকেই আগ্রাসী ফুটবল খেলে বার্সা। সাফল্য পেতেও বেশি দেরি হয়নি স্বাগতিকদের। ১০ মিনিটেই ইনিয়েস্তার ক্রসে মাথা লাগিয়ে চমত্কারভাবে এস্পানিয়লের জালে বল জড়িয়ে দেন জাভি। চার মিনিট পর বার্সাকে ২-০ ব্যবধান এনে দেন পেদ্রো। ২৭ মিনিটে সার্জিও বুস্কেটসের পাস থেকে আরও একটি গোল করেন স্প্যানিশ এই স্ট্রাইকার। দুই মিনিট পর পেনাল্টি থেকে ম্যাচের চতুর্থ গোলটি করেন লিওনেল মেসি। প্রথমাধের্ই ৪-০ গোলে এগিয়ে গিয়ে জয়টা নিশ্চিত করে ফেলে বার্সা। দ্বিতীয়ার্ধে আর গোল পায়নি কোনো দল।
ক্যান্সার ধরা পড়ায় অপারেশনের জন্য বেশ ক’দিন বার্সার ডাগআউটের বাইরে ছিলেন কোচ টিটো ভিলানোভা। রোববার ডাগআউটে ভিলানোভার প্রত্যাবর্তনকে জয় দিয়েই বরণ করে নিল তার শিষ্যরা। দলের জয়ের চেয়েও ভিলানোভার এই প্রত্যাবর্তনকেই বেশি খুশির খবর বলে মন্তব্য করেন বার্সার ক্রীড়া পরিচালক জুবিজারেত্তা। তিনি বলেন, ‘আজকের (রোববার) সবচেয়ে ভালো খবর হলো, আমরা টিটোকে আবার ডাগআউটে ফিরে পেয়েছি।’ দলের পারফরমেন্স নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন ভিলানোভাও। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, ‘প্রথম ৩০ মিনিটের পারফরম্যান্স ছিল খুবই দুর্দান্ত। আমি ডাগআউট ছেড়ে বেরিয়ে আসিনি। কারণ, পুরো দলই খুব ভালো খেলছিল। মাঠের পাশে আমার দাঁড়িয়ে থাকার কোনো প্রয়োজন ছিল না।’
এদিকে রিয়াল সোসিয়েদাদের বিপক্ষে জয় পেতে ঘাম ঝরাতে হয়েছে রিয়াল মাদ্রিদকে। খেলার শুরুতে (২ মিনিটে) করিম বেনজেমার গোলে এগিয়ে যায় রিয়াল। কিন্তু ৯ মিনিটে জাবি প্রিয়েতোর পেনাল্টি শটে ১-১ সমতায় ফেরে সোসিয়েদাদ। ৩৫ মিনিটে গোল করে রিয়ালকে এগিয়ে দেন সামি খেদিরা। কিন্তু প্রথমার্ধের খেলা শেষ হওয়ার আগে সোসিয়েদাদের পক্ষে আরও একটি গোল করেন প্রিয়েতা। ২-২ ব্যবধানে শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা। দ্বিতীয়ার্ধে খেলতে নেমে ৬৮ ও ৭০ মিনিটে জোড়া গোল করেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ৭৬ মিনিটে প্রিয়েতার হ্যাটট্রিক ৪-৩ ব্যবধান করলেও ম্যাচ শেষ হওয়ার আগে আর গোল পায়নি সোসিয়েদাদ।