Amardesh
আজঃঢাকা, রোববার ৬ জানুয়ারি ২০১৩, ২৩ পৌষ ১৪১৯, ২৩ সফর ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২ টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

সাংবাদিকদের পিটিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দিল ছাত্রলীগ : রয়টার্স, প্রথম আলো, নিউএজ ও বাংলা নিউজের ফটো সাংবাদিক শাহবাগ থানায়

স্টাফ রিপোর্টার
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
এবার চার ফটো সাংবাদিককে পিটিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ ক্যাডাররা। গতকাল বিকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এসএম হলের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এরা হচ্ছেন রয়টার্স-এর এন্ড্রু বিরাজ, প্রথম আলোর হাসান রাজা, নিউ এজ-এর সনি রামানি ও বাংলানিউজের হারুন-অর-রশিদ রুবেল। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গাড়িতে অগ্নি-সংযোগের ছবি তোলার জন্য সন্ধ্যা পাঁচটার দিকে আজিমপুর যাচ্ছিলেন তিন সাংবাদিক। এ সময় এসএম হলের সামনে কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটে। সাংবাদিকরা তখন ছবি তোলার জন্য এগিয়ে গেলে ঢাবির একদল সশস্ত্র ছাত্রলীগ সেখানে ছুটে গিয়ে ফটো সাংবাদিকদের ঘিরে ধরে। অজ্ঞাত ব্যক্তিরা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে গেলেও ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা বিস্ফোরণের অভিযোগে তিন ফটো সাংবাদিককে আটক করে। এ সময় সাংবাদিকরা নিজেদের পরিচয় দিলেও ছাত্রলীগ ক্যাডাররা সাংবাদিকদের পরিচয়পত্র দেখতে চায়। রয়টার্সের ফটো সাংবাদিক এন্ড্র বিরাজ প্রথমে নিজের পরিচয়পত্র দেখালেও কাজ হয়নি। এরপর অন্য দুই সাংবাদিক পরিচয়পত্র ও তাদের সঙ্গে থাকা ক্যামেরা ছাত্রলীগ কর্মীদের দেখালেও কাজ হয়নি। এ সময় প্রথম আলোর ফটো সাংবাদিক হাসন রাজা সেখানে উপস্থিত হয়ে সহকর্মীদের পক্ষে কথা বললে তাকে মারধর করে ছাত্রলীগের ক্যাডাররা। এ সময় সেখানে শাহবাগ থানা পুলিশ উপস্থিত হলেও পুলিশ ছাত্রলীগ ক্যাডারদের হাত থেকে সাংবাদিকদের রক্ষা করতে পারেনি। এমনকি সাংবাদিকদের কোনো কথাই শুনেনি পুলিশ। ছাত্রলীগ ক্যাডাররা তিন সাংবাদিককে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।
এ ব্যাপারে শাহবাগ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম জানান, তিন জনকে থানায় ডেকে আনা হয়েছে। ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা যে অভিযোগ করছে এ বিষয়ে খোঁজ-খবর নেয়া হচ্ছে। সাংবাদিক নেতাদের সঙ্গে আলোচনা চলছে বলেও জানান ওসি। তিনি বলেন, আশা করছি শিগগিরই সমস্যার সমাধান হবে।
এদিকে রাত সোয়া সাতটার দিকেও ফটো সাংবাদিকরা শাহবাগ থানায় অবস্থান করছিলেন। সেখানে ডাকা হয়েছে ছাত্রলীগের ঢাবি শাখার সভাপতি মেহেদী হাসান ও ওমর শরীফকে। উপস্থিত রয়েছেন কয়েকজন সিনিয়র ফটো সাংবাদিকও। রমনা জোনের ডিসি নুরুল ইসলামও পৌঁছেছেন শাহবাগ থানায়। তিনি বলেন, একটি ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। আমরা একসঙ্গে চা খেয়ে সমস্যাটির সমাধান করে দিচ্ছি। তবে ফটো সাংবাদিকরা দাবি জানিয়েছেন, দায়ী ছাত্রলীগ কর্মীদের থানায় না আনা হলে তারা থানাতেই অবস্থান করবেন। রাত ৮টার দিকে ১ ঘণ্টার অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করে ফটো সাংবাদিকরা শাহবাগ থানার গেটে অবস্থান করছিলেন।