Amardesh
আজঃঢাকা, রোববার ৬ জানুয়ারি ২০১৩, ২৩ পৌষ ১৪১৯, ২৩ সফর ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২ টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

জামায়াতকে পৃষ্ঠপোষকতার অভিযোগ : কক্সবাজারে কোরাল রিফের ৮ কর্মকর্তা কর্মচারী আটক

কক্সবাজার প্রতিনিধি
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
জামায়াত-শিবিরকে ‘পৃষ্ঠপোষকতা’র অভিযোগে কক্সবাজারের অন্যতম ডেভেলপার কোম্পানি কোরাল রিফের পরিচালক সাইফুল ইসলামসহ অন্তত ৮ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে আটক করেছে পুলিশ। তবে একজন কিশোর ও আরেকজন চাকরিজীবী প্রকৌশলী হওয়ায় পুলিশ দুজনকে ছেড়ে দেয়। গতকাল দুপুর ১২টার দিকে শহরের বাজার ঘাটা এলাকার কোরাল রিফ আইবি ভবন থেকে তাদের আটক করা হয়। এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত ধরা পড়াদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।
আটক কোরাল রিফ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা হলেন কোরাল রিফ পরিচালক ও চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার মনসা এলাকার আনোয়ারুল ইসলামের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩৭), একই কার্যালয়ের কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার আধার ঘোনা এলাকার সাবের আহমদের ছেলে ইমরানুল হক, কক্সবাজার শহরের তারাবনিয়ারছড়ার নুরুল আমিনের ছেলে মোহাম্মদ সারোয়ার, মহেশখালী উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের টাইমবাজার এলাকার নুর আহমদের ছেলে আজিজুর রহমান, শহরের বাজারঘাটার বজল আহমদের ছেলে আলী আহমদ, বরিশাল জেলার কোতোয়ালি থানার কলকাঠি গ্রামের মালেক হোসেনের ছেলে শফিউল আলম, কুড়িগ্রাম জেলার চিলমারী থানার মাথাঠাণ্ডা এলাকার মোজাহের আলীর ছেলে সুজা মিয়া ও রাজবাড়ী জেলার খানাপুর চরখান এলাকার মোহাম্মদ আলাউদ্দিন শেখের ছেলে মোহাম্মদ ইলিয়াছ।
কক্সবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন জানান, ১৮ দলের ডাকা হরতালের আগে নাশকতা ঠেকানোর প্রস্তুতি হিসেবে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করছে। গতকাল সকালে জেলা জামায়াত কার্যালয় এলাকায় অভিযান শেষে বাজারঘাটা এলাকায় অভিযান চালানো হয়।
তিনি বলেন, কোরাল রিফ কর্মকর্তাদের সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করা হয়েছে। কোরাল রিফ নামের এই প্রতিষ্ঠানটি বিভিন্ন সময়ে জামায়াতকে অর্থসহ নানাভাবে সহায়তা করে।
পুলিশ কর্মকর্তা জসীম উদ্দিন জানান, কোরাল রিফের ওই কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তাদের কার্যালয়ের নিচে জড়ো হয়েছিলেন। অফিস টাইমে তারা কেন নিচে জড়ো হলেন, এটা নিয়েই সন্দেহজনকভাবে তাদের আটক করা হয়।
তিনি জানান, ৯ জনকে আটক করা হলেও ওই কার্যালয়ের একজন প্রকৌশলী ও আরেকজন কিশোর হওয়ায় তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে।