Amardesh
আজঃঢাকা, রোববার ২৫ নভেম্বর ২০১২, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪১৯, ১০ মহররম ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২ টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

নারী নির্যাতন বন্ধে পক্ষকালব্যাপী কর্মসূচি : দূর হোক পথের বাধা, মুক্ত হোক নারীর চলাচল

স্টাফ রিপোর্টার
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
‘দূর হোক পথের বাধা, মুক্ত হোক নারীর চলাচল’—স্লোগান নিয়ে গতকাল থেকে নারী নির্যাতন বন্ধে পক্ষকালব্যাপী সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন কর্মসূচি শুরু হয়েছে। আকাশে বেলুন উড়িয়ে বিকাল চারটায় ধানমন্ডির বরীন্দ্র সরোবরের উন্মুক্ত মঞ্চে ‘আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিবাদ পক্ষ ’১২’ উপলক্ষে পক্ষকালব্যাপী ক্যাম্পেইন কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়। স্টেপস টুয়ার্ডস ডেভেলপমেন্টের আয়োজনে ঢাকাসহ দেশের ১৯টি জেলা, ৫৫টি উপজেলা এবং ২৫৫ ইউনিয়ন ওয়ার্ডে একযোগে বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে এ ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে; চলবে ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত। নারী অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনের আলোকে পরিবর্তনের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন স্টেপস টুয়ার্ডস ডেভেলপমেন্টের নির্বাহী পরিচালক রঞ্জন কর্মকার, জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারপার্সন মমতাজ বেগম, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ভুক্ত কমিউনিটি ক্লিনিক প্রকল্পের পরিচালক ডা. মাখদুমা নার্গিস রত্না, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা মাহবুব জামান, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী নির্যাতনবিরোধী নেত্রী নাসরিন সিরাজ এ্যানি প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, সামাজিক নিরাপত্তাই নিশ্চিত করতে পারে নারীর মুক্ত চলাচল। বৈষম্যহীন সমাজ গড়তে এজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে—যাতে জনপদে নারীর চলাচল হয় অবাধ ও মুক্ত। তবেই ঘরের শান্তি ছড়িয়ে পড়বে বিশ্বের সর্বত্র। প্রতিষ্ঠিত হবে নির্যাতন ও বৈষম্যমুক্ত সমাজ।
পরিশেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন বাপ্পা মজুমদার, ক্লোজআপ ওয়ান তারকা লালনকন্যাখ্যাত বিউটি। নৃত্য পরিবেশন করেন তামান্না রহমান ও তার দল, রনি পাল এবং দ্যুতি। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রেখা সাহা ও ডা. মাহমুদুর রহমান।
বেঙ্গলে ১২ শিল্পীর চিত্রকলা প্রদর্শনী : বেঙ্গল গ্যালারি অব ফাইন আর্টসের আয়োজনে সোমবার শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন, কামরুল হাসান, এস এম সুলতানসহ ১২ খ্যাতিমান শিল্পীর ১০ দিনব্যাপী চিত্র প্রদর্শনী শুরু হচ্ছে। বেঙ্গল শিল্পালয়ে বিকাল সাড়ে পাঁচটায় ‘সৃজনে ও শেকড়ে-১১’ শিরোনামে প্রদর্শনীর উদ্ধোধন করবেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পররাষ্ট্র সচিব শিল্প সমালোচক মিজারুল কায়েস ও বেগম জাহানারা আবেদিন। প্রদর্শনীতে ১২ জন শিল্পীর মোট ৪৮টি চিত্রকর্ম প্রদর্শিত হবে। সবার জন্য উন্মুক্ত প্রদর্শনী ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন দুপুর ১২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। বেঙ্গল গ্যালারি অব ফাইন আর্টসের দ্বাদশ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং ১৫তম দ্বিবার্ষিক এশীয় চারুকলা প্রদর্শনী বাংলাদেশ-২০১২ উপলক্ষে এ প্রদর্শনীর অয়োজন। এতে যাদের প্রদর্শনী থাকছে, তারা হলেন শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন, শিল্পী আনোয়ারুল হক, কামরুল হাসান, এস এম সুলতান, হামিদুর রহমান, রশিদ চৌধুরী, আবদুর রাজ্জাক, মবিনুল আজিম, দেবদাস চক্রবর্তী, কাজী আবদুল বাসেত, নিতুন কুন্ডু এবং শাহতাব।
শিল্পকলায় সোমবার মাহিদুল ইসলামের একক আবৃত্তি : জনপ্রিয় আবৃত্তিশিল্পী মাহিদুল ইসলাম মাহির দশম একক আবৃত্তি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে তার দল স্বরচিত্র আবৃত্তি চর্চা ও বিকাশ কেন্দ্র। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে পাঁচটায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর জাতীয় নাট্যশালায় এটি অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে মাহিদুল ইসলাম ২৮টি কবিতা পরিবেশন করবেন। যদি নির্বাসন দাও, আমার বন্ধু নিরঞ্জন, রণাঙ্গনের চিঠি, গুজরাট, রিপোর্ট-১৯৭১সহ বিভিন্ন কবির লেখা দ্রোহ, সমাজ সচেতনতামূলক, প্রেম ও বিরহের কবিতা তিনি আবৃত্তি করবেন। স্বনির্বাচিত কবিতা আবৃত্তির পর দর্শকদের অনুরোধেও কবিতা আবৃত্তি করবেন মাহিদুল ইসলাম।
আবৃত্তির আগে মাহিদুল ইসলামের তিনটি নতুন আবৃত্তি অ্যালবামের প্রকাশনা উত্সব হবে।
হুমায়ূন ও সুনীল স্মরণে পাবলিক লাইব্রেরীতে অনুষ্ঠান : শিল্পিতের আয়োজনে গতকাল সকাল ১০টায় শাহবাগ কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরীর সেমিনার কক্ষে নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ এবং উপমহাদেশের প্রখ্যাত লেখক ও বাংলাদেশের পরম বন্ধু সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের মহাপ্রয়াণে আলোচনা সভা, কবিতা পাঠ ও আবৃত্তি অনুষ্ঠিত হয়। শিল্পিতের সভাপতি ওসমান গনির সভাপতিত্বে আলোচনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও সত্যেন সেন শিল্পীগোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক মানজার চৌধুরী সুইট। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সহ-সভাপতি ও উদীচীর আবৃত্তি প্রশিক্ষক বেলায়েত হোসেন। স্বরচিত কবিতা পাঠ ও আবৃত্তি করেন তন্ময় শফিক, ইনামুল করিম, নীলা, হেদায়েতুল হক, ওয়াহেদ হোসেন, শামসুল কবির চৌধুরী, কামরুজ্জামান কায়েম, মুশ্তরী খাতুন, মোনায়েম, সাহানা জেসমিন, সাঈদ তপু প্রমুখ। অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি বেলায়েত হোসেন সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘নীরার অসুখ’ এবং ‘কেউ কথা রাখেনি’ কবিতা দুটি আবৃত্তি করেন।