Amardesh
আজঃঢাকা, রোববার ২৫ নভেম্বর ২০১২, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪১৯, ১০ মহররম ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২ টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

তিন দফা দাবি : হরতাল-অবরোধে উত্তাল ফুলবাড়ী কয়লাখনি অঞ্চল

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
এশিয়া এনার্জিকে উন্মুক্ত পদ্ধতির কয়লাখনি করতে জরিপকাজে সহায়তা করার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত চিঠি প্রত্যাহারসহ তিন দফা দাবিতে গতকাল দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল-অবরোধ সর্বাত্মকভাবে পালিতে হয়েছে। হরতাল-অবরোধ চলাকালে আন্দোলনকারীদের দাবির বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো সাড়া না পাওয়ায় আজ থেকে লাগাতার হরতাল ও অবরোধ কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। বিকাল সাড়ে ৩টায় খনিবিরোধী আন্দোলনের অন্যতম সংগঠন ফুলবাড়ী সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠনের সমন্বয়ক ও পৌরসভার মেয়র মুরতুজা সরকার মানিক এবং বিকাল পৌনে ৪টায় আন্দোলনের অপর সংগঠন তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুত্-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ফুলবাড়ী শাখার আহ্বায়ক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম জুয়েল পৃথক পৃথকভাবে আজ থেকে অনির্দিষ্টকালের হরতাল-অবরোধের ঘোষণা দিয়েছেন। বক্তারা বলেন, ফুলবাড়ীতে উন্মুক্ত পদ্ধতির কয়লাখনি করার যে কোনো ষড়যন্ত্র মোকাবিলার জন্য খনি অঞ্চলের মানুষ সব সময় প্রস্তুত রয়েছে। সরকার পুলিশকে এশিয়া এনার্জির লাঠিয়াল হিসেবে ব্যবহারের জন্য যে অপচেষ্টা চালাচ্ছে, তা যে কোনো মূল্যে জনগণ রুখবে।
এশিয়া এনার্জিকে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে উন্মুক্ত পদ্ধতির কয়লাখনি করার জরিপকাজে সহায়তাদানের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জারি করা চিঠি প্রত্যাহার, ছয় দফা সমঝোতা চুক্তি বাস্তবায়ন এবং তেল-গ্যাস জাতীয় কমিটির জনসভা ভণ্ডুলের ষড়যন্ত্র করার অভিযোগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কামাল মোহাম্মদ রাশেদকে প্রত্যাহার—এই তিন দফা দাবিতে সকাল থেকেই তেল-গ্যাস জাতীয় কমিটি ও সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠন পৃথকভাবে বিক্ষোভ-সমাবেশ অব্যাহত রাখে। ফুলবাড়ী-দিনাজপুর-বগুড়া মহাসড়কের ওপর অন্তত ২৫ থেকে ৩০টি স্থানে গাছের গুঁড়ি ফেলে এবং টায়ার জ্বালিয়ে ব্যারিকেড দেয় আন্দোলনকারীরা। হরতাল চলাকালে কোনো ধরনের যানবাহন চলাচল করেনি। শহরের খাবারের এবং ওষুধের দোকানপাটসহ সব ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল।
এদিকে হরতাল-অবরোধের সমর্থনে সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠন পৌর শহরে এক বিশাল লাঠি মিছিল বের করে। মিছিল শেষে স্থানীয় নিমতলা মোড়ে আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন খনিবিরোধী আন্দোলনের অন্যতম নেতা ও সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠনের সমন্বয়ক এবং পৌর মেয়র মুরতুজা সরকার মানিক, অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতি, সাখাওয়াত হোসেন, শিবলী সাদিক, গোলাফ্ফর হোসেন প্রমুখ।
অপরদিকে তেল-গ্যাস জাতীয় কমিটির উদ্যোগে নারী-পুরুষ সমন্বয়ে একটি বিশাল লাঠি মিছিল পৌর শহরে বের করা হয়। মিছিল শেষে নিমতলা মোড়ের সভামঞ্চে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বাবলু, তেল-গ্যাস জাতীয় কমিটি ফুলবাড়ী শাখার আহ্বায়ক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম জুয়েল, সদস্য সচিব জয় প্রকাশ গুপ্ত, আবদুল মজিদ চৌধুরী, এসএম নুরুজ্জামান জামান, সঞ্জিত প্রসাদ জিতু, শফিকুল ইসলাম শিকদার, কমল চক্রবর্তী, মোশাররফ হোসেন বাবু প্রমুখ।