Amardesh
আজঃঢাকা, শনিবার ২৪ নভেম্বর ২০১২, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪১৯, ৯ মহররম ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২.০০টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

এনডি টিভির প্রতিবেদন : ভারতের অরুণাচল ও লাদাখ চীনের অংশ

ডেস্ক রিপোর্ট
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
ভারতের অরুণাচল প্রদেশ ও অকসাই চীনকে (লাদাখ) নিজেদের ভূখণ্ড বলে দাবি করেছে বেইজিং। চীনের নাগরিকদের যে নতুন পাসপোর্ট দেয়া হচ্ছে তাতে দেখানো হচ্ছে ভারত নিয়ন্ত্রিত ওই দুটো অঞ্চল চীনের অংশ। তবে এ ব্যাপারে কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি নয়াদিল্লি।
এনডিটিভি জানায়, চীনের মানচিত্রে দক্ষিণ চীন সাগরকেও তার নিজস্ব ভূখণ্ড বলে দেখানো হয়েছে। এটা নিয়েও ভারতের আপত্তি রয়েছে। তবে এ ব্যাপারে এখন পর্যন্ত নয়াদিল্লি কূটনৈতিক পর্যায়ে চীনের কাছে প্রতিবাদ জানায়নি। তবে ভারতীয় পাসপোর্টে অরুণাচল ও অকসাই চীনকে ভারতের অংশ হিসেবেই দেখানো হচ্ছে। সীমান্ত
বিরোধ নিয়ে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা শিব শঙ্কর মেননের চীন সফরের এক সপ্তাহ আগে এমন ঘটনা প্রকাশ হলো। গত সপ্তাহে কম্বোডিয়ায় অনুষ্ঠিত আসিয়ান শীর্ষ সম্মেলনের সাইডলাইনে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে চীনের প্রধানমন্ত্রী ওয়েন জিয়াবাও ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং সীমান্ত বিরোধ পাশ কাটিয়ে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক এগিয়ে নেয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
এর আগে চীন অরুণাচল ও সিকিমের নাগরিকদের চীনের ভিসা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে এই বলে যে, এগুলো চীনের অংশ। এছাড়া জম্মু ও কাশ্মীরের জন্য আলাদা ভিসা দিয়েছে চীন। চীন বলছে, ওই অঞ্চল দুটো ভারতের অংশ নয়।
দক্ষিণ চীন সাগরকে চীনের মানচিত্রে অন্তর্ভুক্ত করার প্রতিবাদ জানিয়েছে ফিলিপাইন ও ভিয়েতনাম। ভারতের জন্যও বিষয়টি অস্বস্তিকর। কারণ, সমুদ্রে তেল গ্যাস অনুসন্ধানের জন্য ভিয়েতনাম সরকারের সঙ্গে চুক্তি করেছে ভারত। তবে চীনের বাধার কারণে ভারত অনুসন্ধান কাজ চালাতে পারেনি।
১৯৬২ সালে অকসাই চীন ও অরুণাচল প্রদেশ নিয়ে ভারত ও চীনের মধ্যে সংক্ষিপ্ত যুদ্ধ হয়েছিল, যাতে ভারতের শোচনীয় পরাজয় হয়।