Amardesh
আজঃঢাকা, শনিবার ২৪ নভেম্বর ২০১২, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪১৯, ৯ মহররম ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২.০০টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

চট্টগ্রামে গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা : ভারত বুঝতে পেরেছে বাংলাদেশের জনগণের সঙ্গে সমঝোতার বিকল্প নেই

চট্টগ্রাম ব্যুরো
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
দীর্ঘদিন পরে হলেও ভারত বুঝতে পেরেছে ‘একচক্ষু প্রেম’ হয় না। তাই বাংলাদেশের জনগণের সঙ্গে তারা একটি সমঝোতায় আসতে চায়। এ কারণেই ভারত সরকার এদেশের সর্ববৃহত্ রাজনৈতিক দল বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে সেদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছে। তবে ভারতে বেগম জিয়াকে আমন্ত্রণের পেছনে তাদের স্বার্থ হাসিলের কোনো উদ্দেশ্য আছে কি-না তা খতিয়ে দেখতে হবে।
গতকাল নগরীর জেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত এক গোলটেবিল আলোচনায় বুদ্ধিজীবী, রাজনৈতিক নেতা ও পেশাজীবীরা এ অভিমত প্রকাশ করেন।
আলোচনা সভায় বেগম জিয়ার ভারত সফর নিয়ে বিভিন্ন ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠানের অতিমাত্রায় উত্সাহের সমালোচনা করে বলেন, বেগম জিয়া ভারত যাননি; বরং ভারতই বেগম জিয়াকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে তাদের স্বার্থ হাসিলের জন্য। এ কারণে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে বাংলাদেশের স্বার্থ যেন অক্ষুণ্ন থাকে। সেই সঙ্গে বেগম জিয়ার সফর সঙ্গীদের ট্রানজিট এবং ভারতীয় বিচ্ছিন্নতাবাদী ইস্যুতে দেয়া বক্তব্যের সমালোচনা করা হয়।
বক্তারা বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সাম্প্রতিক ভারত সফরের মধ্য দিয়ে ভারত বিএনপিকে বাংলাদেশের অন্যতম বৃহত্ ও প্রভাবশালী শক্তি হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। এটা আগামী জাতীয় নির্বাচনে বিএনপির জনপ্রিয়তার আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি।
তারা বলেন, এতদিন আওয়ামী লীগ একতরফাভাবে ভারতকে ব্ল্যাকমেইল করে দেশের স্বার্থ বিকিয়ে নিজেদের আখের গুছিয়েছে। এ সফরের মাধ্যমে বাংলাদেশ বিষয়ে ভারতের সিদ্ধান্ত নিতে ভারসাম্য আসবে বলে তারা মত প্রকাশ করেন।
বৈঠকে ট্রানজিট, টিপাইমুখ, তিস্তা পানি চুক্তি, সীমান্ত হত্যা বন্ধ, ছিটমহল সমস্যাসহ বিভিন্ন ইস্যুতে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সুদৃঢ় জাতীয় ঐক্যের বিষয়ে গুরুত্বারোপ করা হয়।
বিএনপির মহানগর সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন বেগম জিয়ার সাম্প্রতিক ভারত সফরকে ঐতিহাসিক এবং ফলপ্রসূ উল্লেখ করে বলেন, বাংলাদেশের সার্বিক জাতীয় স্বার্থে এই সফর শতভাগ সফল। বেগম জিয়ার সফরের মাধ্যমে ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্ক সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।
সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ ফর পিস অ্যান্ড প্রসপারিটি সোসাইটি নামক সংগঠনের উদ্যেগে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. হাসান মোহাম্মদ। গোলটেবিল বৈঠকে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এনএম সাজ্জাদুল হক। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান আনম মুনির আহমেদ চৌধুরী, দৈনিক আমার দেশ চট্টগ্রাম ব্যুরো চিফ জাহিদুল করিম কচি, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মোজাফফর আহমেদ চৌধুরী, ড. আবুল কালাম আজাদ, অধ্যাপক মোজাম্মেল হক, অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, শাহ আলম, এজিএম নিয়াজুদ্দিন, নয়া দিগন্ত ব্যুরো চিফ হেলাল হুমায়ুন, দৈনিক ঈশান সম্পাদক মো. শাহজাহান, নিউ নেশন ব্যুরো চিফ সারওয়ার উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।