Amardesh
আজঃঢাকা, শনিবার ২৪ নভেম্বর ২০১২, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪১৯, ৯ মহররম ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২.০০টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

স্মিথের সেঞ্চুরি : লড়ছে প্রোটিয়ারা

স্পোর্টস ডেস্ক
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
জমে উঠছে অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার অ্যাডিলেড টেস্ট। গ্রায়েম স্মিথের ২৬তম টেস্ট সেঞ্চুরির সুবাদে অ্যাডিলেডে লড়াইটা ভালোভাবেই চালিয়ে যাচ্ছে প্রোটিয়ারা। গতকাল টেস্টের দ্বিতীয় দিনশেষে স্মিথের অপরাজিত সেঞ্চুরিতে দুই উইকেট হারিয়ে ২১৭ রান সংগ্রহ করে দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রথম ইনিংসে সবক’টি উইকেট হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ার গড়া ৫৫০ রানের বিপরীতে আরও ৩৩৩ রানে পিছিয়ে রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকানরা। হাতে রয়েছে আট উইকেট। দ্বিতীয় দিনশেষে প্রোটিয়া অধিনায়ক গ্রায়েম স্মিথ ১১১ রানে অপরাজিত থাকেন। জ্যাক রুডলফ ২৫ রানে অপরাজিত আছেন। অ্যাডিলেডে প্রথম দিনেই রেকর্ড ডাবল সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে এই প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে এক বছরের মধ্যে চারটি ডাবল সেঞ্চুরি করার অনন্য রেকর্ড গড়েন তিনি। গতকাল অবশ্য বেশিক্ষণ উইকেটে টিকে থাকতে পারেননি আগের দিন ২২৪ রানে অপরাজিত থাকা ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। দিনের ষষ্ঠ ওভারেই তাকে সাজঘরমুখী করেন মরনে মরকেল। তার বলে সরাসরি বোল্ড হওয়ার আগে ২৩০ রানের ইনিংস খেলেন ক্লার্ক। তার এ ইনিংসটি ৪০টি চার ও একটি ছক্কার মারে সাজানো ছিল। ক্লার্ক আউট হওয়ার পর ম্যাথু ওয়েড ও বেন হিলফেনহসের উইকেটও তুলে নেন মরনে মরকেল। এরপর জেমস প্যাটিনসনের ৩৫ বলে গড়া ৪২ রানের ইনিংসের সুবাদে সবক’টি উইকেট হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ দাঁড়ায় ৫৫০। জবাবে লাঞ্চ বিরতির পর ব্যাট করতে নেমে প্রথম ইনিংসের শুরুটা দারুণ করে দক্ষিণ আফ্রিকা। ওপেনিং জুটিতে গ্রায়েম স্মিথ ও আলভাইরো পিটারসেন ১৩৮ রান করেন। কিন্তু ইনিংসে ৪২তম ওভারে অপ্রত্যাশিতভাবে রানআউটের ফাঁদে পড়েন পিটারসেন। সাজঘরে ফেরার আগে ৭টি চারের সাহায্যে ৫৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। পিটারসেন আউট হওয়ার কিছুক্ষণ পর হাশিম আমলাও (১১) সাজঘরে ফেরেন। তখন দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ দাঁড়ায় দুই উইকেটে ১৬৯ রান। তবে দিনের বাকিটা সময় অবশ্য আর উইকেট পড়তে দেয়নি গ্রায়েম স্মিথ ও জ্যাক রুডলফ জুটি। তৃতীয় উইকেটে তারা ৪৮ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
অস্ট্রেলিয়া : প্রথম ইনিংস- ৫৫০/১০ (ব্যাটিং- ক্লার্ক ২৩০, ওয়ার্নার ১১৯ ও হাসি ১০৩ এবং বোলিং- মরকেল ৫/১৪৬, ক্যালিস ২/১৯ ও ডেল স্টেইন ২/৭৯)।
দক্ষিণ আফ্রিকা : প্রথম ইনিংস- ২১৭/২ (ব্যাটিং- স্মিথ ১১১*, পিটারসেন ৫৪ ও রুডলফ ২৫* এবং বোলিং- ওয়ার্নার ১/২৭)। দ্বিতীয় দিনশেষে ৩৩৩ রান পিছিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। হাতে রয়েছে ৮ উইকেট।