Amardesh
আজঃঢাকা, শনিবার ২৪ নভেম্বর ২০১২, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪১৯, ৯ মহররম ১৪৩৪ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১২.০০টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিক
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

সাংবাদিকতায় আবেদ খানের পঞ্চাশ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে বক্তারা : করপোরেট মালিকরা সম্পাদকের ওপর ছড়ি ঘোরাচ্ছেন

স্টাফ রিপোর্টার
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
সাংবাদিক আবেদ খান বলেছেন, করপোরেট মালিকরা একটি পত্রিকা খুলে তার সম্পাদককে হাতের চাবুকে পরিণত করে। সে চাবুক দিয়ে সম্পাদকের ওপর ছড়ি মারে তারা। আমি সে ধারা বদলে দিতে চাই। এমন একটি পত্রিকা তৈরি করতে চাই, যেখানে সত্ সাংবাদিকতা হবে। সাংবাদিকরা হবে মালিক। তার সাংবাদিকতা জীবনের পঞ্চাশ বছর পূর্তি উপলক্ষে গতকাল রাজধানীর সেগুনবাগিচার মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের উন্মুক্ত মঞ্চে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে তাকে তার দীর্ঘদিনের বন্ধুরা শুভেচ্ছা জানান। সাংবাদিক মুস্তাফিজ শফির সঞ্চালনায় আনন্দ আয়োজনে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। শুভেচ্ছা জানাতে এসে তারা বলেন, এদেশের সাংবাদিকতায় আবেদ খানের ভূমিকা অপরিসীম। তিনি বাংলাদেশে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার পথিকৃেদর একজন। গত পঞ্চাশ বছরে গড়া তার কর্মভাণ্ডারই সাংবাদিকতার ইতিহাসে তাকে চিরঞ্জীব করে রাখবে।
অনুষ্ঠানে সাংবাদিক সহকর্মী ও আবেদ খানের বন্ধুবান্ধবসহ বিশিষ্টজনরা অংশ নেন। শুভেচ্ছা জানাতে এসে সর্বজনশ্রদ্ধেয় প্রবীণ সাংবাদিক এ বি এম মূসা বলেন, অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা সাংবাদিকদের জন্য সবচেয়ে কঠিন কাজ। আবেদ খান এ কাজটি শুরু করেন।
দৈনিক ইত্তেফাকের সম্পাদক আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেন, আমার বাল্যবন্ধু তিনি। একসঙ্গে ইত্তেফাক পত্রিকায় কাজ করেছি আমরা। তার লেখনীর ধার আছে, সেটা জানতাম। তাই ইত্তেফাকে তার লেখা আলোচিত সেই কলাম ‘ওপেন সিক্রেট’ প্রকাশ করি। তিনি বলেন, আমার জীবন অনেকটাই অপরিকল্পিতভাবে গড়ে উঠেছে। কিন্তু তিনি যেমন চেয়েছেন, তেমনই নিজেকে গড়তে পেরেছেন। এটা তার বড় একটি সফলতা।
সমকালের সম্পাদক গোলাম সারওয়ার বলেন, সাংবাদিকতায় আবেদ খান ছিলেন নীতির প্রশ্নে আপসহীন। মানবজমিন প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী বলেন, আবেদ খান প্রিন্টের মানুষ। কিন্তু আমাদের এতিম করে তিনি ইলিক্ট্রনিক মিডিয়ায় চলে গেছেন।
অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ভারতীয় হাইকমিশনের ডেপুটি কমিশনার সঞ্জিব চক্রবর্তী, অভিনেতা পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার কবি আসাদ মান্নান, আবেদ খানের বন্ধু সালাহ উদ্দিন আহমেদ বাদশা, সিনিয়র সাংবাদিক শেখ গোলাম মোস্তফা, জগ্লুল্ আহমদ চৌধূরী, শুভ রহমান, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হায়দার আকবর খান রুনো, সমকালের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আবু সাঈদ খান, আবেদ খানের স্ত্রী প্রফেসর সানজিদা আক্তার, প্রথম আলোর বার্তা সম্পাদক সেলিম খান প্রমুখ। জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমদ আবেদ খানকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।