Amardesh
আজঃঢাকা, মঙ্গলবার ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১২, ২ ফাল্গুন ১৪১৮, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৩ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১.০০টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিকী
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

বাঘাইছড়িতে ইউপি সদস্যসহ চার উপজাতি অপহৃত

রাঙামাটি প্রতিনিধি
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলা থেকে ইউপি সদস্যসহ চার গ্রামবাসীকে অপহরণ করেছে অস্ত্রধারীরা। এরা হলেন খেদারমারা ইউনিয়নের উলুছড়ি গ্রামের ১নং ওয়ার্ডের সদস্য সমিরন চাকমা (৩৮) ও প্রমোদ কান্তি চাকমা (৩৬) এবং রূপকারী ইউনিয়নের পশ্চিম লাইল্যাঘোনা গ্রামের যোগেজ চাকমা (৩৭) ও বিজয় চাকমা (৩২)। অন্যদিকে উপজেলার চৌমুহনী বাজার থেকে রাতে বাড়ি ফেরার পথে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (এমএন লারমা) বাঘাইছড়ি উপজেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি চিত্তবিকাশ চাকমা (৫৩) ওরফে অভিযানকে লক্ষ্য করে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা এক রাউন্ড গুলি করে। পরে তিনি পালিয়ে রক্ষা পান। গত রোববার রাতে এসব ঘটনা ঘটে।
অপহৃতদের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রোববার রাত আনুমানিক ১০টায় অপহৃত ব্যক্তিরা নিজ নিজ বাড়িতে ঘুমাচ্ছিলেন। এমন সময় বাড়ির বাইরে থেকে অপরিচিত কয়েকজন দরজা খুলতে বলেন। দরজা খুলে দিলে তারা অস্ত্র ঠেকিয়ে জিম্মি করে এদের জোরপূর্বক ধরে নিয়ে যায়। এরপর থেকে তাদের সঙ্গে কারও যোগাযোগ নেই বলে জানা গেছে।
পরিবারের পক্ষ থেকে কে বা কারা অপহরণ করেছে তা জানাতে পারেনি। তবে স্থানীয়দের ধারণা, পার্বত্য চুক্তির পক্ষ ও বিপক্ষ গ্রুপের যে কোনো একটি পক্ষ স্বার্থ হাসিলে এ ঘটনা ঘটাতে পারে। খেদারমারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অমলেন্দু চাকমা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তার ইউনিয়ন পরিষদের এক সদস্যসহ চার গ্রামবাসীকে অপহরণ করা হয়েছে। বাঘাইছড়ি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সরওয়ার জানান, এক ইউপি সদস্যসহ চারজন অপহৃত হয়েছেন বলে তিনি শুনেছেন। তবে এ ব্যাপারে কেউই থানায় অভিযোগ করেননি। অন্যদিকে একই সময়ে রোববার
রাতে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) বাঘাইছড়ি উপজেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি চিত্ত বিকাশ চাকমা ওরফে অভিযান তার এক ব্যবসায়িক পার্টনারকে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফেরার পথে হাজিপাড়া নামক স্থানে ওঁত্ পেতে থাকা একদল দুর্বৃত্ত তাদের লক্ষ্য করে এক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। পরে তিনি দৌড়ে পুলিশ ফাঁড়িতে আশ্রয় নিলে প্রাণে বেঁচে যান। খবর পেয়ে পুলিশ ও বিজিবি ঘটনাস্থলে গিয়ে এক রাউন্ড খালি গুলির খোসা ও এক রাউন্ড তাজা গুলি উদ্ধার করে।
এ ঘটনার জন্য জনসংহতি সমিতির (এম এন লারমা) প্রতিপক্ষ সন্তু লারমা গ্রুপকে দায়ী করা হয়েছে। দলের বাঘাইছড়ি উপজেলা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক বিমলেশ্বর চাকমা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি করা হয়।