Amardesh
আজঃঢাকা, মঙ্গলবার ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১২, ২ ফাল্গুন ১৪১৮, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৩ হিজরী    আপডেট সময়ঃ রাত ১.০০টা
 
 সাধারণ বিভাগ
 বিশেষ কর্ণার
 শোক ও মৃত্যুবার্ষিকী
 সাপ্তাহিকী
 
আবহাওয়া
 
 
আর্কাইভ: --
 

নাটোরে ভূমি অফিসের টেন্ডার বাক্স ছিনতাই করেছে ছাত্রলীগ

নাটোর প্রতিনিধি
« আগের সংবাদ
পরের সংবাদ»
নাটোরের সিংড়ায় গতকাল স্থানীয় ছাত্রলীগকর্মীরা ভূমি অফিস থেকে উপজেলার ৩০টি হাট-বাজার ইজারার টেন্ডার বাক্স ছিনতাই করে। পরে ভূমি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা পুলিশের সহায়তায় ছিনতাইকৃত টেন্ডার বাক্স ওই একটি পরিত্যক্ত ভবন থেকে উদ্ধার করে। উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা টেন্ডার বাক্স ছিনতাইয়ের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করলেও পুলিশ এ ঘটনার কথা অস্বীকার করে।
উপজেলা ভূমি অফিস ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সোমবার সিংড়া উপজেলার ৩০টি হাট-বাজার ইজারার টেন্ডার দাখিলের দিন ধার্য ছিল। সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত টেন্ডার দাখিলের সময় নির্ধারিত ছিল। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে যুবলীগকর্মী আশরাফুল ইসলাম টেন্ডার দাখিল করতে গেলে ছাত্রলীগকর্মীরা তাকে বাধা দেয়। তাদের বাধা উপেক্ষা করে আশরাফুল রক্ষিত টেন্ডার বাক্সে তার সিডিউল দাখিল করলে ছাত্রলীগকর্মীরা তার ওপর চড়াও হয়। এ সময় তারা ভূমি অফিসে রক্ষিত টেন্ডার বাক্স ছিনতাই করে নিয়ে যায়। এ সময় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে ভূমি কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা পুলিশের সহায়তায় তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের পুরাতন পরিত্যক্ত ভবনের মধ্য থেকে ছিনতাই হওয়া টেন্ডার বাক্স উদ্ধার করেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয়দের কয়েকজন জানান, সিংড়া থানার সামনে ভূমি অফিসে টেন্ডার বাক্স ছিনতাইয়ের সময় পুলিশের কোনো ভূমিকা ছিল না।
এ ব্যাপারে সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (চলতি দায়িত্ব) এসআই মন্তেজার রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ভূমি অফিসের টেন্ডার বাক্স ছিনতাই হওয়ার মতো কোনো ঘটনা ঘটেনি বলে দাবি করেন। তবে উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা রেজাউল করিম টেন্ডার বাক্স ছিনতাইয়ের সত্যতা স্বীকার করে জানান, সকালে টেন্ডার বাক্স অফিসের বারান্দায় রাখার জন্য প্রস্তুতি নেয়ার সময় কয়েক যুবক বাক্সটি নিয়ে অফিসের পাশে যায়। পরে তা উদ্ধার করে আনার পর পুলিশের উপস্থিতিতে টেন্ডার সিডিউল জমা নেয়া হয়।
সিংড়া থানা ছাত্রলীগ সভাপতি রায়হান কবির টিটুর সঙ্গে মোবাইল ফোনে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি জানান, টেন্ডার বাক্স ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেনি। তবে নির্ধারিত সময়ের আগেই আশরাফুল টেন্ডার দাখিল করায় বিক্ষুব্ধ কয়েকজন ঠিকাদার বাক্সের মধ্যে থেকে দাখিলকৃত সিডিউলটি বের করে নেয়ার জন্য ভূমি কর্মকর্তার কাছে দাবি জানায়। বাক্স থেকে ওই সিডিউলটি বের করে আশরাফুলের হাতে দেয়া হয়েছে মাত্র। পুলিশের উপস্থিতিতেই সে নির্ধারিত সময়ে আবার সিডিউল জমা দেয়। তাকে লাঞ্ছিত করার কথাও সঠিক নয়।